1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
দিনাজপুরে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী বগুড়ায় চাঁদা দাবীর অভিযোগে দুই পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার বিএনপি’র রাজনৈতিক আদর্শ লাশ বিহীন কবর জিয়ারতের মতো – গোপাল এমপি ৩৩৩-এ কল করে খাদ্য সহায়তা পেল সাদুল্লাপুরের ৬০ কর্মহীন পরিবার সাদুল্লাপুরে স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে পালালেন স্বামী সুন্দরগঞ্জে স্বামীকে হত্যার দ্বায় স্বীকার করেছে স্ত্রী বগুড়ার শেরপুরে কুলি শ্রমিক ইউনিয়নের অবৈধ কমিটি বাতিলে সংবাদ সম্মেলন শেরপুরে ভাতিজিকে উত্যক্ত প্রতিবাদ করায় চাচাকে ছুরিকাঘাত গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপৎসীমার ওপরে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত রংপুরে স্মৃতিতে রণাঙ্গন এর মোড়ক উন্মোচন

আজ ২২ শ্রাবণ: বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রয়াণ দিবস

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট, ২০২০
  • ৯১ বার পঠিত

সুবল চন্দ্র দাস ।- আজ ২২ শ্রাবণ, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রয়াণ দিবস। আজ থেকে ৭৯ বছর আগে ১৯৪১ সালের ৬ আগস্ট, বাংলা ১৩৪৮ বঙ্গাব্দের ২২ শ্রাবণ কলকাতার জোড়া সাঁকোর ঠাকুর বাড়িতে বাংলা সাহিত্য ও কাব্যগীতির শ্রেষ্ঠ রূপকার রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পরলোকগমন করেন। ৮০ বছর বয়সে চলে গেলেও বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে হাজার বছর সামনে এগিয়ে দিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তার এ গানের মাধ্যমে মৃত্যুকে সহজ ভাবে বরণ করার কথা বলেছিলেন। আছে দুঃখ, আছে মৃত্যু, বিরহ দহন লাগে। /তবুও শান্তি, তবু আনন্দ, তবু অনন্ত জাগে- এভাবেই রবীন্দ্রনাথ তার গানে তার আবেগ প্রকাশ করেছেন। বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল ভিন্ন ধারার স্রষ্ট্রার রবীন্দ্রনাথ। চিন্তা ও কর্মের মাধ্যমে অনন্তকাল মানুষের অন্তরে জাগরূক থাকার সব উপাদান রয়েছে তার সৃষ্টি কর্মে। বাঙালির শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর আজীবনের সম্রাট। বাংলা সাহিত্যের মাধ্যমে বাঙালিকে তিনি বিশ্বের দরবারে পরিচিত করেছিলেন। ‘গীতাঞ্জলি’ কাব্য গ্রন্থের মাধ্যমে তিনি প্রথম বাঙালি ও প্রথম এশীয় হিসেবে ১৯১৩ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। নোবেল ফাউন্ডেশন তার এই কাব্যগ্রন্থটিকে বর্ণনা করেছিল একটি ‘গভীর ভাবে সংবেদনশীল, উজ্জ্বল ও সুন্দর’ কাব্য গ্রন্থ হিসেবে। দরিদ্র কৃষককে ঋণ দেওয়ার লক্ষ্যে নোবেল পুরস্কারের অর্থে কৃষি ব্যাংকের কাজ শুরু করেন তিনি। কেবল সমাজ সচেতন নন; রাজনীতি সচেতন ব্যক্তিত্বও ছিলেন তিনি। বঙ্গভঙ্গ রদ করার দাবিতে তিনি হিন্দু-মুসলমানদের নিয়ে রাখিবন্ধন কর্মসূচিতে রাজপথেও নেমে আসেন। ১৯১৫ সালে ব্রিটিশ সরকার তাকে ‘নাইট’ উপাধি দিলেও ১৯১৯ সালে পাঞ্জাবের জালিয়ান ওয়ালাবাগে ব্রিটিশ বাহিনীর নির্মম হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন। শিক্ষানুরাগী রবীন্দ্রনাথ শিক্ষা বিস্তারে শান্তি নিকেতন ও বিশ্ব ভারতী প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। রবীন্দ্র প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে সারাদেশে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। বাংলা একাডেমি ও ছায়ানটের আলোচনা, বক্তৃতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পৃথক কর্মসূচি রয়েছে। তবে করোনা মহামারির কারণে এবার সম্পূর্ণ ভিন্ন আবহে দিবসটি পালিত হচ্ছে। সব অনুষ্ঠানই এবার অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকা বিশেষ লেখা প্রকাশ করেছে। টেলিভিশন চ্যানেল গুলো প্রচার করছে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com