শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৬:০৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
চিলমারী কল্যাণ সমিতির কমিটি গঠন পীরগঞ্জে পাটচাষীদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত   দিনাজপুর শিশু একাডেমীর চিত্রাংকনসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে নেসকো গ্রাহকদের নিয়েপিএলসির নেসকোর  গণশুনানী ফুলবাড়ী শিবনগর ইউনিয়নে বয়স্ক ও বিধবা ভাতার কার্ড এর লটারি অনুষ্ঠিত  পলাশবাড়ীতে দুই বাইকের সংঘর্ষে আহত স্বদেশ এর মৃত্যু এসএসসি পরীক্ষায় মোবাইলে  প্রশ্নপত্র ফাঁস এক শিক্ষকের কারাদন্ড রংপুরে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন “শেকড় ” এর সহয়োগীতায় বর্ণমালায় রোদ্দুর কবিতা পাঠের আসর বাংলাদেশ প্রেসক্লাব পীরগঞ্জ শাখার সম্মেলন ও কমিটি গঠন

উচ্চশিক্ষা থেকে বঞ্চিত গাইবান্দার চরাঞ্চলের শিশুরা

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ১০৮ বার পঠিত
 রুবেল ইসলাম।- গাইবান্ধার চরাঞ্চলে ১১৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয় থাকলেও মাধ্যমিক স্কুল ও মাদরাসা নেই বললেই চলে। ফলে প্রাথমিকের গণ্ডি পেরোতেই ঝরে পড়ছে শিক্ষার্থীরা। এ অঞ্চলের বেশিরভাগ শিক্ষার্থীরই উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন ঝরে পড়ছে অকালে। এর বিরূপ প্রভাব পড়ছে জেলার সামগ্রিক শিক্ষা ও আর্থ-সামাজিক অবস্থার ওপর। অনেকেই জড়িয়ে পড়ছে বাল্যবিয়েসহ শিশুশ্রমে।
গাইবান্ধা সদর, সুন্দরগঞ্জ, সাঘাটা ও ফুলছড়ি এই চার উপজেলার বুক চিরে বয়ে যাওয়া ব্রহ্মপুত্র, তিস্তা, যমুনায় জেগে ওঠা ছোট-বড় সবমিলিয়ে ১৬৫টি চর-দ্বীপচর রয়েছে এ জেলায়। শিক্ষার্থী ও কথিত ভাড়াটে শিক্ষক দিয়ে চলছে বেশ কিছু প্রাথমিক বিদ্যালয়। তবে মাধ্যমিক পর্যায়ের পর্যাপ্ত স্কুল না থাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় পাস করার পর ঝরে পড়ছে বেশিরভাগ শিশু। এদের মধ্যে ছেলেরা নিয়োজিত হচ্ছে কৃষিকাজে। আর অল্প বয়সেই বিয়ে হয়ে যাচ্ছে মেয়েদের।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জেলার চরাঞ্চলে অন্তত চার লাখ মানুষের বসবাস। নদীতীর সংলগ্ন ১২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দুটি মাদরাসা থাকলেও চরে নেই কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এছাড়া নদীভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান।
গাইবান্ধা সদরের ব্রহ্মপুত্রের চর কাবিলপুরচরের বাসিন্দা জুনাইদ সিদ্দিকী পড়েন গাইবান্ধা সরকারি কলেজে। তিনি  জানান, ওই চর থেকে গতবছর ২৩ জন শিক্ষার্থী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পাস করলেও হাই স্কুলে ভর্তি হয়েছে সাতজন।তিনি বলেন, ‘চর এলাকায় হাই স্কুল না থাকাই ঝরে পড়ার মূল কারণ। মূল ভূখণ্ড উপজেলা কিংবা জেলা শহরে পড়তে হলে অনেক দূরের পথ অতিক্রম করতে হয়। অনেকেই হাই স্কুলে ভর্তি হলেও মাঝপথে ঝরে পড়ে যাতায়াত ও আবাসন সংকটের কারণে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com