1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫৮ অপরাহ্ন

একটি আদর্শ ইউনিয়ন গড়ার স্বপ্ন দেখেন চেয়ারম্যান ছাদেকুল ইসলাম

  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৭ জুলাই, ২০২০
  • ২৫৭ বার পঠিত

সুলতান আহমেদ সোনা।- রংপুর জেলার আলোচিত উপজেলা পীরগঞ্জ। এই উপজেলা ১৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। অবশ্য একটি পৌরসভাও রয়েছে এখানে। এই ইউনিয়নগুলোর মধ্যে ভোটার সংখ্যা এবং জনসংখ্যার দিক থেকে ১৩নং রামনাথপুর ইউনিয়ন অনেকটা বড়। এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ ছাদেকুল ইসলাম বিএসসি। রামনাথপুর ইউনিয়নের সীমানা ছিল ১৮ মৌজা নিয়ে। লোক সংখ্যা ৫০ হাজার প্রায়। ২৪ হাজার ভোটার। কিন্তু পীরগঞ্জপৌর সভার সাথে উজিরপুর ও মহজিদপুর মৌজা যুক্ত হবার কারনে এখন ১৬ মৌজা নিয়ে মাথা উচু করে দাড়িয়ে আছে রামনাথপুর ইউনিয়ন।
সাদকুজ্জামান বিএসসিকে এলাকার মানুষ সকলেই সাদেক বিএসসি নামেই চেনেন। সহজ সরল মানুষ জনাব ছাদেকুল ইসলাম বিএসসি। তিনি ২০১৭ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর ব্যাপক জনসমর্থন নিয়ে চেয়ারম্যার নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর মনোনিত প্রার্থী হিসেবে নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান। তার রাজনৈতিক পরিচয় হলো পারিবারিক ভাবেই তিনি আওয়ামীলীগ করেন। তার পেশা শিক্ষককতা। তিনি ওই ইউনিয়নের খেজমতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। এছাড়াও পীরগঞ্জ উপজেলার একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হিসেবে তার ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। পীরগঞ্জ উপজেলায় তার পরিবারের ধান-চাউল,পাট, অটো রাইচ মিল এর ব্যবসা রয়েছে। সম্প্রতি রামনাথপুর ইউনিয়নের উন্নয়ন,উন্নতি,সমস্যা,সম্ভবনা নিয়ে তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ইচ্ছা থাকলেই জনগনের উন্নতি সহজে সবাই করতে পারে না। তিনি বলেন, একজন জনপ্রতিনিধি যদি সৎ না হন, সেবার মানসিকতা তার না থাকে এবং ব্যক্তিগত ভাবে স্বচ্ছল না হন, তা হলে সেই প্রতিনিধির দ্বারা কিছু করা সম্ভব হবে না। জনাব সাদেকুজ্জামান বিএসসি বলেন, ইচ্ছা ছিল চেয়ারম্যান হিসেবে আমার ইউনিয়নরে রাস্তা ঘাট গুলো পাকা করবো। কিন্তু এখনো পারিনি। তিনি বলেন,রামনাথাপুর ইউনিয়নের অধিকাংশ এলাকার মাটি লাল। বর্ষা শুরু হলো এলাকার রাস্তা দিয়ে মানুষ হাটতে পারে না। কিন্তু চেষ্টা করে যাচ্ছি। তিনি বলেন আমার এলাকার অধিকাংশ মানুষ কৃষক। কিছু মানুষ মৎস্যজীবী। কৃষি নির্ভর অর্থনীতির উপর ভর করেই এখানকার মানুষ জীবন নির্বাহ করেন। আলু,কচু উৎপাদন, গবাদি পশু প্রতিপালন প্রধান সাধারণ মানুষের প্রধান পেশা। এক সময় ব্যাপকভাবে এলাকায় গরু চুরি হতো ,মাদক, জুয়ার প্রভাব ছিল; আমি এলাকার জনগন ও পুলিশ বিভাগের সহায়তায় সব বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছি। সরকার বাড়ি বাড়ি বিদ্যুৎ দিয়েছেন। আমি সোলার প্যানেল এর মাধ্যমে রাস্তার মোড়গুলোর অন্ধকার দুর করেছি। ২ হাজার ৫০০ মিটার রাস্তায় এইচ বি বি করা হয়েছে। বেশ কিছু পাকা ড্রেন করেছি। এবার বর্ষায় যাতায়াত সহজ করতে ২০০ ট্রাক রাবিশ ফেলেছি। গণীর হাট, বটের হাট ও মাদার হাটের উন্নয়ন করেছি। এখন সমস্যার মধ্যে রয়েছে কাঁচা রাস্তা। সাদেক চেয়ারম্যান বলেন ৮টি রাস্তা জরুরী ভিত্তিতে করা দরকার। রাস্তাগুলো হচ্ছে ১। ঘোলা পাকা রাস্তা থেকে কালশার ডাড়া পাকা পর্যন্ত ২ কিঃ মিঃ ২। খেজমতপুর বিশ্বরোড হতে সয়েকপুর খুদুর বাড়ি পর্যন্ত ২ কিঃ মিঃ ৩। রাধাকুষ্ণপুর পাকার মোড় হতে মন্ডল পাড়ার মধ্য দিয়ে ময়নার চাতাল পর্যন্ত ২ কিঃমিঃ ৪। রামনাথপুর মিয়া পাড়ার পাকার মাথা হতে বড় ঘোলার মনজুর তালুকদারের বাড়ি পর্যন্ত ২ কিঃমিঃ ৫। আব্দুল্লাপুর বটগাছের নিকট থেকে কাষ্টম জলির এর বাড়িপর্যন্ত দেড় কিঃ মিঃ ৬। সয়েকপুর মন্ডল পাড়া হতে সয়েকপুরের আব্দুর রহমানের বাড়ি হয়ে তেপথি পর্যন্ত দেড় কিঃ মিঃ ৭। বিশ্বরোড় হতে বটেরহাট পর্যন্ত ২ কিঃ মিঃ ৮। খেজমতপুর পাকার মাথা হতে গাছুপাড়ার মধ্য দিয়ে সয়েকপুর পাকা রাস্তা পর্যন্ত ২ কিঃমিঃ রাস্তা পাকা হলে এলাকার মানুষ খুব খুশি হবে। জনাব ছাদেকুল ইসলাম বিএসসি বলেন, তিনি মাননীয় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি মহোদয়ের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন । তিনি আশা করেন রাস্তাগুলো পাকা হবে। চেয়ারম্যান সাহেব বজ্রকথাকে জানান তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে একটি আদর্শ ইউনিয়ন গড়ে তোলা। সে লক্ষ্যে তিনি কাজ করছেন। ভবিষ্যতে তিনি কৃষিপণ্যের বাজার ব্যবস্থা এবং বেকারদের কর্মসংস্থানের উপর গুরুত্ব দেবেন বলে জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com