শনিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পলাশবাড়ী কৃষি কর্মকর্তা কে মাটির স্বাস্থ্য সুরক্ষায় পুরুস্কার লাভ গাইবান্ধা-৫ আসনে আচরণবিধি লঙ্খন করায়  কারন দর্শানোর নোটিশ বিরামপুর হানাদার মুক্ত দিবস পালিত   জাতীয় পার্টি গঙ্গাচড়া উপজেলা শাখার আহবায়ক কমিটি অনুমোদন পীরগঞ্জ মুক্ত দিবস পালন বিরামপুরে জুয়া খালার ৫ জুয়াড়ীকে আটক করেছে পুলিশ  নারী নির্যাতনের প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে গাইবান্ধায় মানববন্ধন পার্বতীপুরে গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের জন্য স্কুল ব্যাগ প্রদান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব খতিব উদ্দিন আহমেদ এর জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ৭ দিনব্যাপী গাভী পালন প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন

এবার আলু বীজের দামও বেড়ে গেছে

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৩৮ বার পঠিত

বজ্রকথা প্রতিনিধি।–এবার  খাবার আলুর দাম বৃদ্ধির সাথে সাথে বীজ আলুর দামও বেড়ে গেছে।

বীজ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানগুলো মৌসুমে সস্তায় আলু কিনে হিমাগারে সংরক্ষণ করে রেখেছিল, এখন সেই আলু, বীজ  হিসেবে চড়াদামে বিক্রী হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায় গত মৌসুমে বীজ আলু সংরক্ষণকারী কোম্পানী গুলো, মাঠ হতে চাষিদের নিকট থেকে ৫০০টাকা মন দরে আলু কিনেছে। তাতে প্রতি কেজি আলুর দাম পড়েছে সাড়ে ১২ টাকা। পরিবহন খরচসহ ১৫টাকা। হিমাগারে প্রতিবস্তা বীজ আলুর সংরক্ষণ খরচ (৫৩কেজির বস্তা ) ২৮০  টাকা। তাতে দেখা যায় প্রতিকেজি  আলুর সংরক্ষণ ব্যয় প্রায় সাড়ে ৫ টাকা।  এর সাথে অন্যান্যা ব্যয়  সাড়ে ৯ টাকা  যোগ করলে মোট খরচ দাঁড়ায় কেজি বীজ আলুতে ৩০ টাকা।

কৃষকরা জানিয়েছেন, বীজ বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানগুলো এবার বীজ  আলুর মুল্য ধরেছে প্রতি কেজি ৬৭টাকা, কিন্তু ডিলারগণ কৃষক পর্যায়ে এককেজি বীজআলু  বিক্রী করছেন ৭৫ থেকে ৮০টাকায়।

কৃষকরা আরো জানিয়েছেন, ৫০ শতকের এক বিঘা জমিতে বীজ লাগে ৫৫০কেজি। ৭৫ টাকা দরে প্রতিকেজি বীজ কিনলে বিঘায় শুধু বীজ কিনতে কৃষককে গুণতে হবে ৪১ হাজার ২৫০টাকা। এর উপর সার ক্রয়, রোপন খরচ, মাটি কাটা, সেচ, ছত্রাক নাশক ঔষধ, লেবার  ইত্যাদি মিলে আরো ২০হাজার টাকা ব্যয় করতে হবে।  এখানেই শেষ নয় কৃষকরা বলেছেন, আলু তোলা, বছাই করা,বস্তা করা ও পরিবহন মিলে কৃষককে আরো গুনতে হবে  ১০ হাজার টাকা।এবার এক বিঘা আলু আবাদে কৃষক খরচ দেখিয়েছেন ৭১ হাজার ২৫০ টাকা।

কৃষক নজরুল ইসলাম, হাবীজার রহমান, মোঃ ফারায়েজ হোসেন, মোস্তফা জামান বজ্রকথা জানিয়েছেন, এতো টাকা খরচ করে আলু আবাদ করা কী সম্ভব? আগামী বছর কৃষক তার লাভসহ খরচ তুলতে না পারলে মাঠে মারা যাবে। আগামী বছর যে হাটে বাজারে চড়াদামে আলু বিক্রী করতে পারবে কৃষক তার নিশ্চয়তা কোথায়?

কৃষকরা প্রতি কেজি বীজ আলু ৫০টাকার নিচে নির্ধারণ করার দাবী জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com