শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
চিলমারী কল্যাণ সমিতির কমিটি গঠন পীরগঞ্জে পাটচাষীদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত   দিনাজপুর শিশু একাডেমীর চিত্রাংকনসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে নেসকো গ্রাহকদের নিয়েপিএলসির নেসকোর  গণশুনানী ফুলবাড়ী শিবনগর ইউনিয়নে বয়স্ক ও বিধবা ভাতার কার্ড এর লটারি অনুষ্ঠিত  পলাশবাড়ীতে দুই বাইকের সংঘর্ষে আহত স্বদেশ এর মৃত্যু এসএসসি পরীক্ষায় মোবাইলে  প্রশ্নপত্র ফাঁস এক শিক্ষকের কারাদন্ড রংপুরে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন “শেকড় ” এর সহয়োগীতায় বর্ণমালায় রোদ্দুর কবিতা পাঠের আসর বাংলাদেশ প্রেসক্লাব পীরগঞ্জ শাখার সম্মেলন ও কমিটি গঠন

করোনা মোকাবেলায় রাশিয়ার টিকায় অনুমোদন পুতিনের

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০
  • ৪৪২ বার পঠিত

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট  ভ্লাদিমির পুতিন কভিড-১৯ রোগের একটি টিকার অনুমোদন দিয়েছেন। মঙ্গলবার রুশ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পাওয়ায় এ টিকার বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরুর পথে আর কোনো বাধা থাকল না। রাশিয়াই বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে এই টিকার অনুমোদন দিল। রুশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মাস দুয়েকের মধ্যে এ ভ্যাকসিন ব্যাপক হারে প্রয়োগ শুরু হবে ।
গতকাল রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত সরকারি এক বৈঠকে পুতিন বলেন, আজ সকালে বিশ্বে নভেল করোনাভাইরাসের প্রথম টিকা নিবন্ধন করা হলো। মস্কোর গামালিয়া ইনস্টিটিউটের তৈরিকৃত ভ্যাকসিনটি নিরাপদ। আমি জানি, এটা বেশ কার্যকরভাবেই কাজ করে এবং শক্তিশালী ইমিউনিটি গড়ে তোলে। আমি আবারও বলছি- প্রয়োজনীয় সব পরীক্ষা-নিরীক্ষায় উতরে গেছে এই ভ্যাকসিন। আমার এক মেয়ে ভ্যাকসিনটি নিয়েছে। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর তার শরীরের তাপমাত্রা ৩৮ হয়েছিল, পরদিন ৩৭। এতটুকুই। কভিড-১৯ এর এই ভ্যাকসিনের গণহারে উৎপাদন শিগগিরই শুরু হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। পরে এক ফেসবুক পোস্টে রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, আমাদের ওষুধটি এই মহামারীর বিরুদ্ধে খুব কার্যকর এবং এটি শুধু রাশিয়ার জন্য আশা জাগায়নি, গোটা বিশ্বের জন্যই সুখবর নিয়ে এসেছে। একসময় সোভিয়েত ইউনিয়নের স্যাটেলাইটই মানব জাতিকে মহাশূন্যে নিয়ে গিয়েছিল। এবার রাশিয়ান এই ভ্যাকসিনটি করোনামুক্ত বিশ্বের পথ দেখাবে। পুতিন বলেন, ভ্যাকসিনটি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী এ ভাইরাস ঠেকাতে কার্যকর প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়তে সক্ষম। এ ছাড়া এটি নিরাপদ বলেই প্রথমে আমার মেয়েকে প্রয়োগ করেছি। কভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পথে রুশ বিজ্ঞানীরা পরীক্ষা-নিরীক্ষার সব ধাপ পার হয়ে এসেছেন। তারা প্রমাণ করেছেন এই ভ্যাকসিন নিরাপদ ও কার্যকর।রাশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী ট্যাটিয়ানা গোলিকোভা বলেন, সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে স্বাস্থ্যকর্মীদের মাঝে প্রথম এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। তবে সাধারণ জনগণের জন্য ভ্যাকসিনটি সহজলভ্য হবে আগামী বছরের জানুয়ারির শুরুতে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com