রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১০:১৬ অপরাহ্ন

কিশোরী জাকিয়ার নির্যাতন ও হত্যাকারীকে শাস্তির আওতায় আনা হবে  -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১
  • ১৫০ বার পঠিত

ফজিবর রহমান বাবু ।- দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, একটি ছোট মেয়েকে যে পাশবিক নির্যাতন করে এবং নির্মমভাবে হত্যার করতে পারে সে কোন মানুষের পর্যায়ে পড়ে না। এই নরপশুদের দ্রæত সময়ের মধ্যে চিহ্নিত করে তাদের আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। এজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট আন্তরিকতার সাথে কাজ করছে। কিশোরী জাকিয়াকে নির্যাতন ও হত্যাকারীরা যেই হোক তাদের অবশ্যই শাস্তির আওতায় আনা হবে।

৫ জুলাই ২০২১ সোমবার দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার তাড়গাঁ ইউনিয়নের পাহাড়পুর গ্রামের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী জাকিয়া আক্তার (১১) কে হত্যার ঘটনায় নিহতের বাবা মা কে শান্তনা দিতে গিয়ে এমপি গোপাল এসব কথা বলেন। এরপর তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং কবর জিয়ারত করেন।

এসময় নিহতের বাবা কীটনাশক ব্যবসায়ী মো: জাহাঙ্গীর হোসেনকে আশ্বস্ত করে এমপি গোপাল আরও বলেন, অপরাধী যত শক্তিশালীই হোকনা কেন, যে কোনো রাজনৈতিক দলের সমর্থনপুষ্ট ই হোক না কেন, এই অপরাধের কোন ভাবে ছাড় দেওয়া হবে না। কাহারোল এর মত একটি শান্তিপ্রিয় এলাকায় এমন ঘটনা যারা সংঘটিত করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরুল হাসান, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রাজেন্দ্র দেব নাথ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান সঞ্জয় কুমার মিত্রসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাবৃন্দ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত শনিবার ৩ জুলাই’২১ জাকিয়া আক্তার বাড়ীর পার্শ্ববর্তী তরলা গ্রামে প্রাইভেট পড়তে যায়। প্রাইভেট পড়ে বাড়ীতে ফিরে না আসায় মেয়েকে তার বাবা মা সহ অন্যান্য পাড়া প্রতিবেশীরা অনেক খুঁজাখুজি করে। পরের দিন গত ৪ জুলাই ২১ রোববার সকাল অনুমানিক ৯টার দিকে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের বনড়া গ্রামের একটি পাট ক্ষেতের ধারে আম গাছের নিচে জাকিয়াকে মাটিতে পুতে রাখা অবস্থায় দেখতে পেয়ে বাবা-মাকে সংবাদ দেন। মেয়ের বাবা কাহারোল থানায় সংবাদ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com