1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ০১:১৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
বগুড়ার শিবগঞ্জে বাস্তবায়িত বিষমুক্ত নিরাপদ আম বাগান পরিদর্শন করেন ইউএনও  মুজিববর্ষে শেরপুরে আনছার ভিডিপি’র উদ্যোগে গাছের চারা বিতরণ ঠাকুরগাঁও ৭ দিনের লকডাউন পীরগঞ্জে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর তৎপরতা ফুলবাড়ীতে হিজড়া সম্প্রদায়ের যাচাই বাছায়ের জন্য ও অবৈধ্য হিজড়া সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলেই দেশের মানুষের কল্যাণ ও উন্নতি হয় -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি সাপাহারে ছাত্রাবাস থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার বীরগঞ্জে শর্ত অমান্য করে বালু উত্তোলন বগুড়ায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহতদের থেকে পাওয়া গেল ৫৯ বোতল ফেন্সিডিল অভিযোগ পীরগঞ্জের এক হুজুর আর এক হুজুরের টাকা কেড়ে নিয়েছে অন্যের আর্টিকেল নিজের নামে চালিয়ে গুগল রেডলিস্টে বেরোবি শিক্ষক সমালোচনার ঝড়

গাইবান্ধায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত : ৩টি প্রাথমিক ও ১টি উচ্চ বিদ্যালয় নদীগর্ভে বিলীন

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০
  • ৩৭ বার পঠিত

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল, গাইবান্ধা।- গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র ও ঘাঘট নদীর পানি ২০ জুলাই সোমবার পর্যন্ত বিপদসীমার অনেক উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় জেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি এখনও অপরিবর্তি রয়েছে। পানি কমতে শুরু করায় বন্যা কবলিত গাইবান্ধা সদর, সুন্দরগঞ্জ, সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। নদী ভাঙনে ফুলছড়ি উপজেলার চর কাবিলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঝানঝাইড় কমিউনিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম কালাসোনা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সাঘাটা উপজেলার গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়টি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এজন্য বিদ্যালয় ৪টি অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এছাড়া হুমকির মুখে পড়েছে জিগাবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও চৌমোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

এদিকে গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার চরাঞ্চলসহ বিভিন্ন এলাকার বাড়িঘরে এখনও হাটু থেকে কোমর পানি থাকায় মানবেতর জীবনযাপন করছে পানিবন্দি চরাঞ্চলের মানুষগুলো। দ্বিতীয় দফায় বন্যায় নদী ভাঙনে ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয় নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। এছাড়া হুমকির মুখে পড়েছে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। বন্যার পানি দীর্ঘ স্থায়ী হওয়ায় ফুলছড়ি উপজেলার উড়িয়ায় ও ফজলুপুর ইউনিয়নের চরগুলোর পানিবন্দি মানুষেরা চরম দুর্ভোগে রয়েছে। ফলে মানুষরা গবাদি পশু নিয়ে বিপাকে পড়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, সোমবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি বিপদসীমার ৭৪ সে.মি. এবং ঘাঘট নদীর পানি ৫১ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com