1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

ঘোড়াঘাটে কোন মতেই থামছে না ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৪ বার পঠিত
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে ড্রেজার মেশিন দিয়ে এভাবেই বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধি।- দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে কোন মতেই থামছে না ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। কৃষি জমির ক্ষতির আশঙ্কায় ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
গত মঙ্গলবার বেলা ১১টায় অভিযোগটি দাখিল করেন উপজেলার শেখালীপাড়া গ্রামের আঃ কাদের মীর সহ ১২জন ভুক্তভোগী। লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে প্রতিপক্ষ উপজেলার শেখালীপাড়া গ্রামের আঃ সাত্তারের ৩ ছেলে লেবু, সাহেব, সাবু মিয়া ও একই উপজেলার বারপাইকের গড় গ্রামের আনার খলিফার ছেলে আঃ রউফ ভান্ডারী নিজেদেরকে সরকার দলীয় লোক দাবী করে প্রভাব খাটিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করার ফলে কৃষি জমি ভাঙ্গনের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে ভুক্তভোগীদের অনুমান ১০ একর কৃষি জমি অনাবাদি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বালু উত্তোলনে বাঁধা দিলে প্রতিপক্ষের লোকজন মারপিট, খুন-জখম ও হুমকি প্রদান করে।
বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এ ধারা ৫- এর ১ উপধারা অনুযায়ী পাম্প বা ড্রেজিং বা অন্য কোন মাধ্যমে ভূ-গর্ভস্থ বালু বা মাটি উত্তলোন করা যাবে না। ধারা ৪ এর (খ) অনুযায়ী সেতু, কালভার্ট, বাঁধ, সড়ক, মহাসড়ক, রেললাইন ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সরকারী ও বেসরকারী স্থাপনা অথবা আবাসিক এলাকা থেকে ১ কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ। আইন অমান্যকারী ২ বছরের কারাদন্ড ও সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
এ রকম আইন থাকা সত্বেও ইতিপূর্ব থেকেই উপজেলার শালিকাদহ, নুনদহ ঘাট, ভেলামারী, শেখালীপাড়া ও জয়রামপুর, নারায়নপুরে অবাধে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। গত কিছু দিন পূর্বে সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানম কিছু কিছু স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করলেও শুধুমাত্র পাইপ বা মেশিন পুড়ে দেয়া হয়েছে। বাস্তবতায় আইনের ব্যাখ্যা অনুযায়ী আইন প্রয়োগ করা হয় নাই। ফলে সে সময় কিছুদিন বন্ধ থাকলেও স¤প্রতি আবারও পুরোদমে বালু উত্তোলন শুরু হয়েছে। বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত মেসি, ট্রলি গুলো রাস্তা ঘাটে বেপরোয়া চলাচলের ফলে একদিকে যেমন রাস্তা ঘাটের ক্ষতি সাধন হচ্ছে। অপর দিকে রাস্তায় চলাচলে মানুষের জীবনের নিরাপত্তা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। কারন এ সব মেসি ও ট্রলি এত দ্রুত গতিতে চালানো হয় যে, যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনা হয়ে আসছে এবং আরও হতে পারে। অভিযোগকারী বাদেও এলাকাবাসীর ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে এ সমস্ত অবৈধ বালুর ব্যবসা বন্ধে। গত ১২ অক্টোবর উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় অবৈধ বালু উত্তোলন নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করেছে কমিটির সদস্য জিল­ুর রহমান। আইন শৃঙ্খলা সভা চলাকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিউল আলম বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।
অভিযোগ প্রসঙ্গে ইউএনও রাফিউল আলমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ হাতে পেয়েছি। যত দ্রুত সম্ভব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
এদিকে কৃষি জমির আশেপাশে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন অতিদ্রুত বন্ধের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য জোর দাবী জানিয়েছেন আঃ কাদের মীর সহ ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com