শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

দিনাজপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সবুরের ন্যায় বিচার পাওয়ার দাবি 

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ১০৪ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, দিনাজপুর।- দিনাজপুর সদরের পল্লীতে বীর মুক্তিযোদ্ধার ৮৭ শতক জমি দখলের জন্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সবুর এবং তার পরিবারের সদস্যদের উপর নৃশংস হামলা ও বসতবাড়ি ভাংচুর করেছে ভূমিদস্যু আসাদুজ্জামান ভুট্টু ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীরা।

আজ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বীর মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলা, বসতবাড়ি ভাংচুর ও জমি দখলের অভিযোগ করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আব্দুস সবুর বলেন, সদরের পাইকপাড়া মৌজার জেএল নং ১১৯‘র ৩৭ নং দাগের এর ৫২ শতক এবং ৩৭১ নং দাগের ৩৫ শতক মোট ৮৭ শতক পৈত্রিক সুত্রে পাওয়া সম্পত্তি জমি দখলের জন্য গত ১৭ নভেম্বর হামলা চালায় ভুমিদ:স্যু সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ভুমি দখলদার জামান সরকার,তার পুত্র মাহাবুব সরকার এবং নাশকতাবাজ আসাদুজ্জামান ভুট্টুসহ অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা চাইনিজ কুড়াল, ধারালো অস্ত্র, রড ও বাঁশের লাঠি নিয়ে হামলায় চালায়।

ওই হামলায় সন্ত্রাসীরা নির্দয় ভাবে এলোপাতারি কুপিয়ে জখম করেছে আমাকে ও আমার স্ত্রী ছালেহা বেগম, মেয়ে তানজিলা জাহান ও পুত্র নুর মোহাম্মদ সালজার সরকারকে গুরুত্বর জখম করে। এসময় তারা আমার মেয়ে ও স্ত্রীকে চুলের মুঠি ধরে নির্দয় ভাবে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে। এসময় সন্ত্রাসীরা আমার বসত-বাড়ি ভাংচুর করে ও নগদ ৩০ হাজার টাকাসহ বাড়ির মুল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। আমাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা প্রানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আমাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্যে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। এব্যাপারে আমি ১৮ নভেম্বর ২০ ভুমিদস্যু সন্ত্রাসীদের নাম উল্লেখ করে কোতায়ালী থানায় মামলা করি। মামলা নং- ৩৮ তাং ১৮/১১/২০।

চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরে এলে ভুমিদস্যু জামান সরকার ও তার সন্ত্রাসীরা মামলা তুলে নেয়ার জন্যে আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ভাবে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর ভয়ভীতি এবং হত্যা করে লাশগুমে হুমকি দিয়ে বেড়াচ্ছে।

তিনি বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হয়েও ন্যায় বিচারের জন্যে দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছি। আমি প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি ন্যায় বিচার না পেলে আমার আতত্নহত্যা ছাড়া বিকল্প কোনো পথ থাকবে না। তাই আমাকে এবং আমার পরিবারের সদস্যদের ন্যায় বিচার প্রাপ্তিতে প্রশাসনের সহযোগীতার দাবী করছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: ইউনুস আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আমিন উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: খাদেম উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আইনুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মজির উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আজগর আলী, মোছা: সামছুন নাহার ও তানজিলা জাহান জোৎস্না প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com