শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ঈদের দিনে পীরগঞ্জে হাউজি জুয়া ! পরিবারের বিরুদ্ধে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পীরগঞ্জে নারী শিক্ষার বাতিঘর কসিমন নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের ষাট বছর পূর্তি অনুষ্ঠান কাল গীতিকবি আব্দুর রহিম আর নেই এফসাকল এর শোক প্রকাশ পীরগঞ্জে আনসার  ভিডিপির প্লাটুন তালিকা  হালনাগাদ  করণ শুরু পীরগঞ্জে ম‌রণোত্তর বীমা দাবীর চেক প্রদান দিনাজপুর আইডিইবি মহিলা ও পরিবার কল্যাণ পরিষদের ইফতার দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী পরিষদের পরিচিতি সভা পার্বতীপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত মিঠাপুকুরে ভারপ্রাপ্ত মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ

দূরপাল্লার গণপরিবহন চালুর দাবীতে পলাশবাড়ীতে শ্রমিক বিক্ষোভ

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১৭ মে, ২০২১
  • ১৪২ বার পঠিত

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল।- বাংলাদেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলে ৫ এপ্রিল থেকে সারা দেশে গণপরিবহন বন্ধ করে দেয় সরকার। পরিবহন বন্ধ রেখে অফিস খোলা রাখায় ভোগান্তিতে পড়েন চাকরিজীবীরাসহ শ্রমজীবী ও নানা পেশাজীবীর মানুষ। এই সমালোচনার মুখে পড়ে সরকার শুধু সিটি করপোরেশন এলাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত নেয়। এরপর ঈদের আগে সিটি করপোরেশনসহ জেলার ভেতরে পরিবহন চালুর ব্যাপারে সরকারের সিদ্ধান্ত আসে। এ কারণে ঈদ সামনে রেখে মানুষ বাস ছাড়া অন্য পরিবহনগুলোতে করে ঝুঁকি নিয়ে বাড়ি ফেরে। ঈদের আগে কিছু জায়গায় অবশ্য বাস চলতেও দেখা গেছে। সব কিছু চললেও গণপরিবহন চলাচলে কঠোরতায় শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। ঈদের দিনে কর্মের জন্য বিক্ষোভ করেছে গণ পরিবহন শ্রমিক ও মালিকগণ। শ্রম যদি রাষ্ট্রের মূল অর্থনৈতিক চালিকা শক্তি হয় তবে শ্রমিকের নায্য অধিকার আদায় করে দেওয়ার দায়িত্ব যেমন রাষ্ট্রের তেমনি তারাও দেশের স্বার্থে আইন কানুন মেনে চলবে। জীবন বাচাতে এসকল শ্রমজীবী মানুষের জন্য রাষ্ট্রে করণীয় রয়েছে। সহানুভুতির প্রয়োজন। আগামী ১৬ মে থেকে সারা দেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দূরপাল্লার বাস চালুর দাবিতে গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী পৌর শহরে গাইবান্ধা জেলা বাস মিনিবাস কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিকগণ বিক্ষোভ করেছেন । বিক্ষোভ মিছিলটি পৌর শহরের ঘুরে চৌমাথা মোড়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ বক্তব্য রাখেন গাইবান্ধা জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও প্যানল মেয়র আব্দুস সোবাহান বিচ্চু। এতে তিন শতাধিক শ্রমিক ও বাসমালিক অংশ নেন। বক্তারা বলেন, গণপরিবহন গুলো ব্যক্তি মালিকানায় হলেও এগুলো দেশের সম্পদ । গণপরিবহনের চাহিদা পুরুনে যে সকল উদ্যোগক্তা এগিয়ে এসেছে আঞ্চলিক ভাবে তাদের কষ্টের সম্পদ রক্ষায় ও শ্রমিকের পেটের খাদ্য চাহিদা পূরুনে গণপরিবহন গুলো খুলে দেওয়া হোক। পরিবহন গুলো বসে যেমন ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে তেমনি এ সকল পরিবহন কে ঘিরে হাজার হাজার শ্রমজীবী পরিবার বিপাকে পড়েছে। এ বিষয়ে সরকারের জরুরী ভাবে এসকল পরিবহন ও শ্রমিকদের নিয়ে নতুন ভাবে ভাবতে হবে । তারা যে কোন শর্তে ১৬ মে হতে দূরপাল্লা গণপরিবাহন গুলো চালুর দাবী জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com