সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৩৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
দিনাজপুরে ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী ধর্ষক আটক সোনার বাংলা গড়তে হলে সোনার মানুষ প্রয়োজন-মনোরঞ্জন শীল দিনাজপুরে মৎস্যজীবী লীগ ৪নং শেখপুরা ইউনিয়ন কমিটি গঠন জনগণের কাছে বিএনপি’র ক্ষমা প্রার্থনা করা উচিত-গোপাল এমপি দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের শ্রদ্ধা দিনাজপুর জেলা আ: লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২২ সফল করতে প্রস্তুতি সভা পার্বতীপুরে এড.মোস্তাফিজুর রহমান এম পি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন গাইবান্ধায় ৮৩ হাজার ৫৭০ জন পাবেন বিনামূল্যে বীজ নেচে-গেয়ে দর্শক মাতালো সাঁওতাল তরুণীরা সাফল্য সাহত্যি সংস্কৃতি পরিবার বাংলাদশে এর লেখক পাঠক মিলনমেলা

নবাবগঞ্জে সনাতন পদ্ধতিতেই চলছে পাটের আঁশ ছাড়ানোর কাজ

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৯৮ বার পঠিত
নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকে সৈয়দ হারুনর  রশীদ।- দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে সনাতন পদ্ধতিতে চলছে পাটের আঁশ ছাড়ানোর কাজ। ইতিপূর্বে পাট অধিদপ্তর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রনালয়ের উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় পাট চাষীদের প্রশিক্ষন প্রদান করা হয়েছিল। উপজেলা কৃষি দপ্তরের মাধ্যমে প্রদান করা হয়েছিল পাটের আঁশ ছাড়ানোর রিবোন রেটিং মেশিন। চলতি মৌসুমেও পাট চাষীদের প্রশিক্ষন দেয়া হয়েছে। তবে সে সব প্রশিক্ষন চাষীরা কাজে প্রয়োগ করছেন না।ফলে প্রকল্পের যে উদ্দেশ্য তা সফল হচ্ছে না। দিনাজপুর জেলা পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা দিলিপ কুমার মালাকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, করোনার কারনে এবারে পাট চাষীদের তেমন প্রশিক্ষন দেয়া হয়নি।আর পাটের আঁশ ছাড়ানোর যে মেশিনের কথা বলা হচ্ছে সেটি অনেক দেয়া হয়েছিল। ওই মেশিনে আঁশ ছাড়ানো বেশ কষ্টকর। তাই হয়তো চাষীরা সেটি ব্যবহার করতে চাইছে না। তাছাড়া বর্তমান সময়ে আঁশ ছাড়ানোর নতুন মেশিন বের হয়েছে যেটি ইঞ্জিন দ্বারা চালিত। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানের নিকট উপজেলায় কত জন পাট চাষীকে রিবোন রেটিং মেশিন দেয়া হয়েছিল জানতে চাইলে তিনি জানান ওসব অনেক আগের কথা। ওই সব হিসাব খুজে পাওয়া মুশকিল এবং তার জানা নাই। তবে নির্ভর যোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে গোডাউনে এখনও বেশ কয়েকটি মেশিন মজুদ রয়েছে। উল্লেখ্য চলতি মৌসুমে উপজেলা এলাকায় পাট অধিদপ্তর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রনালয়ের উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ১১০ হেক্টর জমিতে ১৩০০ চাষী পাট চাষ করেছেন। উপজেলা সহকারী পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলামের দেয়া তথ্য মোতাবেক চলতি মৌসুমে ও-৯৭-৯৮ জাতের পাট চাষ করা হয়েছে এবং একর প্রতি ৩৪ মন করে পাট উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। পাটের আঁশ ছড়ানোর কাজ। ইতি পূর্বে পাট অধিদপ্তর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রনালয়ের উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় পাট চাষীদের প্রশিক্ষন প্রদান করা হয়েছিল। উপজেলা কৃষি দপ্তরের মাধ্যমে প্রদান করা হয়েছিল পাটের আঁশ ছড়ানোর রিবোন রেটিং মেশিন। চলতি মৌসুমেও পাট চাষীদের প্রশিক্ষন দেয়া হয়েছে। তবে সে সব প্রশিক্ষন চাষীরা কাজে প্রয়োগ করছেন না।ফলে প্রকল্পের যে উদ্দেশ্য তা সফল হচ্ছে না। দিনাজপুর জেলা পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা দিলিপ কুমার মালাকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান করোনার কারনে এবারে পাট চাষীদের তেমন প্রশিক্ষন দেয়া হয়নি।আর পাটের আঁশ ছড়ানোর যে মেশিনের কথা বলা হচ্ছে সেটি অনেক দেয়া হয়েছিল। ওই মেশিনে আঁশ ছড়ানো বেশ কষ্টকর। তাই হয়তো চাষীরা সেটি ব্যবহার করতে চাইছে না। তাছাড়া বর্তমান সময়ে আঁশ ছড়ানোর নতুন মেশিন বের হয়েছে যেটি ইঞ্জিন দ্বারা চালিত। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানের নিকট উপজেলায় কত জন পাট চাষীকে রিবোন রেটিং মেশিন দেয়া হয়েছিল জানতে চাইলে তিনি জানান ওসব অনেক আগের কথা। ওই সব হিসাব খুজে পাওয়া মুশকিল এবং তার জানা নাই। তবে নির্ভর যোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে গোডাউনে এখনও বেশ কয়েকটি মেশিন মজুদ রয়েছে। উল্লেখ্য চলতি মৌসুমে উপজেলা এলাকায় পাট অধিদপ্তর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রনালয়ের উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ১১০ হেক্টর জমিতে ১৩০০ চাষী পাট চাষ করেছেন। উপজেলা সহকারী পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলামের দেয়া তথ্য মোতাবেক চলতি মৌসুমে ও-৯৭-৯৮ জাতের পাট চাষ করা হয়েছে এবং একর প্রতি ৩৪ মন করে পাট উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com