শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:০৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ঈদের দিনে পীরগঞ্জে হাউজি জুয়া ! পরিবারের বিরুদ্ধে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পীরগঞ্জে নারী শিক্ষার বাতিঘর কসিমন নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের ষাট বছর পূর্তি অনুষ্ঠান কাল গীতিকবি আব্দুর রহিম আর নেই এফসাকল এর শোক প্রকাশ পীরগঞ্জে আনসার  ভিডিপির প্লাটুন তালিকা  হালনাগাদ  করণ শুরু পীরগঞ্জে ম‌রণোত্তর বীমা দাবীর চেক প্রদান দিনাজপুর আইডিইবি মহিলা ও পরিবার কল্যাণ পরিষদের ইফতার দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী পরিষদের পরিচিতি সভা পার্বতীপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত মিঠাপুকুরে ভারপ্রাপ্ত মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ

পলাশবাড়ীতে  নার্সের বাসায় ভুল চিকিৎসায়  মা ও শিশুর  মৃত্যু! 

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৩ এপ্রিল, ২০২৩
  • ২২৬ বার পঠিত
ছাদেকুল ইসলাম রুবেল।- গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীকে ভর্তি না দেখিয়ে নার্সের বাসায় সন্তান প্রসবের জন্য নেয়া স্বর্না বেগম (২৫) নামে এক প্রসুতি ও তার নবজাতক সন্তানের করুন মৃত্যু হয়েছে।
অভিযুক্ত নার্সের নাম আমেনা বেগম ঝর্না সে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।
নিহত হলেন গাইবান্ধা সদর উপজেলার সাহাপাড়া ইউপির ফলিমারী গ্রামের সুজন মিয়ার কন্যা ঝর্ণা।তার স্বামীর বাড়ী বাদিয়াখালী ইউনিয়নের উদাখালী গ্রামে।
২ এপ্রিল সরেজমিন তথ্যানুসন্ধানে এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা জানায় ২৩ মার্চ সকালে স্বর্না প্রসব বেদনায় ছটফট করলে তাকে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়।
সেখানে কর্তব্যরত নার্স আমেনা বেগম ঝর্না প্রাথমিক ভাবে তাকে জরুরি বিভাগে ভর্তি না করে হাসপাতালের ২য় তলায় নিয়ে যায়।এরপর ওই প্রসুতির অবস্থা দেখে তার শরীরে বেশ কয়েকটি ইনজেকশন পুশ করে।পরে ২ ঘন্টা ভর্তি ছাড়াই রোগীকে হাসপাতালের বেডে শুয়ে রাখে।
দুপুর ১২ টার দিকে প্রসুতির আত্নীয়কে নার্স  জানায় রোগীর ডেলিভারি হতে দেরী হবে,হাসপাতালে ডাক্তার নেই! আপনারা রোগী নিয়ে বাসায় চলে যান।নার্সের এমন কথা শুনে রোগীরা হতাশায় ভেঙ্গে পরেন।
এক পর্যায়ে নার্স আমেনা বেগম ঝর্না জানায় রোগীকে নার্সের  বাসায় নিয়ে চিকিৎসা দিলে রাত ১২ টার মধ্যেই  সন্তান ভুমিষ্ট হবে। নার্সের কথা মত রোগীকে তার বাসায় নিয়ে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা দেয়া হয়।
রাত ৩ টা পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে সন্তান ভুমিষ্ট না হওয়ায় তিনি রোগীর নিকট আত্নীয়দের ডাকতে বলেন এবং ভোর ৬ টার দিকে প্রসুতির গোপনাঙ্গ কেটে মৃত সন্তান বের করেন নার্স আমেনা বেগম ঝর্না।
কিছুক্ষণ পর নার্স জানায়  তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে হবে।
 দুঃখ জনক হলে ও সত্য হাসপাতালে নেওয়ার আগেই ২৪ ঘন্টা অতিবাহিত হয়ে রোগী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।
এম্বুলেন্স ড্রাইভার রিপন জানান, হাসপাতালে নেয়ার পথেই ওই প্রসুতির
 মৃত্যু হয়।
পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: রাহাত আল রাজীব বলেন জনস্বার্থে হলে ও  লিখিত অভিযোগ পেলে ওই নার্সের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এদিকে এই ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য সিনিয়র স্টাফ নার্স আমেনা বেগম বিভিন্ন মহলে দৌড় ঝাপ শুরু করেছেন বলে জানা যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com