1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পীরগঞ্জে একদিনের সফরে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী প্রধানমন্ত্রীর স্বামী ওয়াজেদ মিয়ার সমাধিতে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতৃবৃন্দের শ্রদ্ধাঞ্জলি ফুলবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির মৃত্যুতে ইউপি চেয়ারম্যানদের শোক প্রকাশ গতিহীন বিএনপি’র জন্য হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা করতে হবে -গোপাল এমপি পত্নীতলায় অনৈতিক কর্মকান্ডে বাঁধা দিয়ে গ্রামবাসী বিপাকে ঘোড়াঘাটে জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় সভা জবাই বিলের নাম শুনলে আড়ৎদারদের মাছ কেনার প্রতি আগ্রহ বাড়ে -খাদ্যমন্ত্রী ফুলবাড়ীতে ক্ষুদ্র প্রান্তিক চাষীদের বিনামূল্যে বীজ রাসায়নিক সার বিতরণীর উদ্বোধন পীরগঞ্জে পুকুরে ডুবে দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু দিনাজপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে এক কোটি টাকা দুর্নীতির অভিযোগ: দুদকের তদন্ত শুরু

পীরগঞ্জে আমন ধানের ভরা মৌসুমে ইজিপিপি কর্মসূচী ধান কাটা নিয়ে বিপাকে কৃষক

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৮ বার পঠিত
পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি ।- রংপুরের পীরগঞ্জে আমন ধান কর্তনের ভরা মরশুমে অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসুচী (ইজিপিপি) অব্যহত থাকায় তীব্র মজুর সংকটের সৃষ্টি হয়েছে । ফলে যথা সময়ে আমন ধান ঘরে উঠানো নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছে কৃষকেরা । ধান ঘরে তুলতে অতিরিক্ত অর্থ খরচ করেও কৃষকেরা যথা সময়ে পুরো ধান ঘরে তুলতে পারবেন কি না এ নিয়ে সন্দিহান ।
উপজেলা কৃষি বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, চলতি আমন মরশুমে পীরগঞ্জে ২৫ হাজার ২শ’ ৬০ হেক্টর জমিতে আমন ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্র নির্ধারন করা হলেও বন্যায় ১ হাজার ৯ শ’ ৫০ হেক্টর জমির আমন ক্ষেত বিনষ্ট হয়েছে। আর ধান কর্তন করে ঘরে উঠানোর এখন উপযুক্ত সময়।
অপর দিকে পীরগঞ্জে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার  অফিস সুত্রে জানা গেছে, গত ১৪ নভেম্বর শনিবার থেকে পীরগঞ্জে (ইজিপিপি) কার্যক্রম শুরু হয়েছে এবং তা ৪০ কর্ম দিবস অব্যহত থাকবে । আর এতে পীরগঞ্জের ১৫ টি ইউনিয়নের ৪ হাজার ৮ শ’ ৯ জন পুরুষ ও মহিলা মজুর এ কর্মসুচীতে অন্তর্ভুত করা হয়েছে ।
এদিকে গত বুধবার উপজেলার বড়দরগাহ, ভেন্ডাবাড়ী, পীরগঞ্জ, কুমেদপুর, মি‌ঠিপুর, শা‌নেরহাট ও চৈত্রকোল ইউনিয়নের সরেজমিন আমন ক্ষেত পরিদর্শন দেখা গেছে ৮০ শতাংশ আমন ধান কর্তনের উপযোগী হয়েছে ।  অথচ কৃষকেরা ধান কর্তন করতে পারছেন না । অনেকে সীমিত সংখ্যক মজুর দিয়ে, আবার অনেকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ধান কর্তন করছেন । আবার অনেক কৃষক মজুরও পাচ্ছেন না এবং পরিবারের সদস্যদেরও নিয়েও ধান কর্তন সম্ভব হচ্ছে না । কারন তারা এ কাজে অভ্যস্থ নয় । তারা শুধু ধান ক্ষেত প্রত্যক্ষ করে শান্তনা পাওয়ার চেষ্টা করছেন  এবং প্রহর গুনছেন কবে ধান ঘরে তুলবেন ।
উপজেলার রসুলপুরের সালাম, জয়নাল, মরারপাড়ার নাজমুল, চাপাবাড়ীর মশফিকুর সহ মিলকি, হরিপুর, মির্জাপুর, ভীমশহর, ভুজুবাড়ী,ঝরারঘাট সহ বেশ ক’টি গ্রামের সাধারণ কৃষক আমন ধান কর্তন নিয়ে জানান তাদের উদ্বেগ আর উৎকন্ঠার কথা । তাদের মতে এ সময়ে এমনিতেই মজুর সংকট তার পরেও অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসুচী মজুর সংকট কে আরও প্রকট করেছে । অনেক কৃষক ধান ঘরে তুলতে পারছে না মজুরের অভাবে। যে সকল কষক কষ্ট করে মজুর সংগ্রহ করছেন তাদেরকে ৫০ শতাংশ জমির ধান কর্তনের জন্য ৩ হাজার থেকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা ব্যায় করতে হচ্ছে । যা গত বছরের চেয়ে ১ হাজার টাকা বেশী । তাই কৃষকেরা মনে করছেন এ সময় এ কর্মসুচী স্থগীত থাকলে মজুর সংকট কিছুটা হলেও হ্রাস পাবে এবং কৃষকদের ধান কর্তনে সহায়ক হবে।
সরকারী নিয়মানুযায়ী অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত অতি দরিদ্রদের জন্য এ কর্মসংস্থান কর্মসুচী বাস্তবায়নের সময় নির্ধারিত ধাকলেও অক্টোবরে শুরু না করে আমন ধান কর্তনের ভরা মরশুমে কাজ শুরু করার ব্যাপারে জানতে চাইলে বড় আলমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজার রহমান তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এ কর্মসুচীর কারনে একটু মজুর সংকট তো হবেই । কারন এ সময় এ কর্মসুচী না থাকলে কর্মসুচীতে অন্তভুর্ক্ত ব্যাক্তিরা আমন ধান কর্তনে শ্রম দিত ।
একই প্রশ্নের ব্যাপারে পীরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মিজানুর রহমান তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সে সময় মাটি পাওয়া যেত না । তাই তখন কাজ শুরু করা হয়নি ।
পীরগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাদেকুজ্জামান সরকার এ ব্যাপারে তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এ কর্মসুচীর কারনে আমন ধান কর্তনের ক্ষেত্রে তেমন প্রভাব পড়বে না । যে ভাবেই হোক কৃষকেরা ধান কর্তন করে ঘরে তুলবেন ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com