বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন

পীরগাছায় বিএনপি’র নেতাকর্মীর অংশগ্রহণে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী মানববন্ধন

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৩২ বার পঠিত

রংপুর প্রতিবেদক।- নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন, সিলেটের এমসি কলেজে গৃহবধুকে ধর্ষণসহ সারাদেশে ধর্ষণ, নির্যাতনের প্রতিবাদে ও ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে রংপুরের পীরগাছা উপজেলায় হাজারো নেতাকর্মীর অংশগ্রহণে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে উপজেলা বিএনপি।
আজ সোমবার দুপুরে পীরগাছার রেলস্টেশনস্থ দলীয় কার্যালয়ে পীরগাছা উপজেলা বিএনপি’র আয়োজনে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঘন্টা ব্যাপী মানবন্ধনটি হাজারো নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে সমাবেশে রুপ নেয়। রেল স্টেশন থেকে শাপলা চত্বর পর্যন্ত সড়কের দু’ধারে নেতাকর্মীরা দাড়িয়ে প্রতিবাদ জানান।
উপজেলা বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি খন্দকার মতিয়ার রহমানের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আফসার আলী। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও পীরগাছা বাজার দোকান মালিক-ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আমিনুল ইসলাম রাঙ্গা। এসময় পীরগাছা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজার রহমান রেজা, উপজেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি ও ছাওলার সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নাজির হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদত জাকির আহমেদ, পীরগাছা সদর ইউনিয়ন সভাপতি সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা যুবদলের সদস্য আব্দুল আলীম, কল্যাণী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জিকরুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক সিরাজ মিয়া, অন্নদানগর বিএনপির সভাপতি জিল্লুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ, তাম্বুলপুর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবির, কান্দি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শাহাব উদ্দিন মৃধা, কৈকুড়ি ইউনিয়ন সভাপতি হারনুর রশিদ বাবলু, সাধারণ সম্পাদক মনছুর আলী, ছাওলা ইউনিয়ন সভাপতি আলতাব হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারী জুলফিকার, ইটাকুমারী ইউনিয়ন সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, সম্পাদক গোলাম হোসেন, পারুল ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ বাবলু, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মতিন প্রমুখ। এসময় উপজেলা ও ৯ ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
হাজারো নেতাকর্মীর অংগ্রগ্রহণে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, সিলেটের এমসি কলেজের স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণের পর নোয়াখালীতে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন। এভাবে একের পর এক ধর্ষণ ও নারীর প্রতি নিপীড়ন, নির্যাতন বেড়েই চলছে। বিচারহীনতার সংস্কৃতি ও আইনি প্রক্রিয়ার দীর্ঘ সূত্রতার কারণে নারীরা আজ ঘরে বাইরে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।
বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, ধর্ষকদের অধিকাংশই ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মী। সরকার চাইলে নিজের দলের নেতা-কর্মীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়ে এসব ন্যাক্কারজনক কর্মকান্ড বন্ধ করতে পারে। কিন্তু তা না করে, আইনের ফাঁকফোঁকড় দিয়ে তাদের মুক্তির ব্যবস্থা করা হয়। একারণে প্রতিদিন অসংখ্য অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। অবিলম্বে ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com