শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পীরগঞ্জ উপজেলার কমিউনিটি ক্লিনিক ও উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মেডিকেল সরঞ্জাম বিতরণ রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালী পরিদর্শনে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ মোস্তফা মহসিন সুন্দরগঞ্জে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত দিনাজপুর সার্কেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষা সম্পন্ন দিনাজপুরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উদযাপনে এ্যাডভোকেসী দিনাজপুরে বিআরটিএ’র  রিফ্রেসার প্রশিক্ষণ সম্পন্ন রংপুরে উপজেলা  চেয়ারম্যান প্রার্থীর উপর হামলার অভিযোগ দিনাজপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক রচনা ও বির্তক প্রতিযোগীতা   রংপুর বিভাগের নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান- ভাইস চেয়ারম্যানের শপথগ্রহণ

বীরগঞ্জে প্রধানশিক্ষিকা কে লাঞ্ছিত করায় এসএমসি’র সভাপতি  বিচার দাবি

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৪৪ বার পঠিত

মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর)।- বীরগঞ্জে প্রধান শিক্ষক আর্জিনাকে লাঞ্চিত করায় এসএমসি’র সভাপতি খালেক চেয়াম্যানের বিচার দাবি করেছে শিক্ষক সমাজের নেতারা।

ঘটনার বিষয়টি জানাজানি হলে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি, সাধারন সম্পাদক, প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি সম্পাদক, সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি/সম্পাদক ও মহিলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি,সাধারন সম্পাদকগন এসএমসি’র সভাপতি খালেক সরকারের কঠোর সমালোচনা করে নিন্দা ও তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং প্রশাসনের কাছে ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান।

অসুস্থ (হার্ড সাজারী) প্রধান শিক্ষক আর্জিনা বেগম জানান, উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের কল্যানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমি দখল করছে ভুমিদস্যু বুলু আহমেদ। এমোন সংবাদ পেয়ে এসএমসি’র সভাপতি খালেক সরকারকে প্রতিবাদ ও প্রতিহত করার অনুরোধ করেন প্রধান শিক্ষক আর্জিনা বেগম। এসএমসি’র সভাপতি খালেক সরকার এই জন্য ক্ষিপ্ত হয়ে প্রধান শিক্ষক মোছাঃ আর্জিনা বেগমকে অশ্লিল অশ্রাব্য ভাষায় মাগি-ছাগি ও শালির বেটি শালি তোর বাপের জমি বলে গালাগালি করে।
তুই তো চাকর চাকরের মত থাকিস, আর কোথাও কোন অভিযোগ করলে পেটে লাত্থি মেরে ভুড়ি বের করে দিব বলে গালাগালি করে। তিনি বলেন, তারা ওয়ারিশ সুত্রে ওদের জমি দখল করলে আমি কি করব ? এসএমসি’র সভাপতির সহযোগিতা না পেয়ে নিরুপায় হয়ে প্রধান শিক্ষক মোছাঃ আর্জিনা বেগম উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা অফিসার বরাবর রাষ্ট্রিয় সম্পদ রক্ষার জন্য গত ২৫ অক্টোবর পৃথক পৃথক অভিযোগ করেন। খালেক সরকার আমাকে মাগি-ছাগি, শালির বেটি শালিসহ যে ভাবে গালাগালি করেছে তা ভাষায় অর্বননীয় আল্লার এই দুনিয়ায় এ ধরনের মুখের ভাষা আমার জীবনে আগে কখনও শুনিনি।
এ ছাড়াও ১৯১৫ইং খেলার মাঠের দক্ষিনাংশে স্থানীয় ১১জন দোকানদারের কাছে ২৫ হাজার টাকা হারে ২লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা জমানত নিয়ে ১১টি দোকান ঘর নির্মান করা হয়। এসএমসি’র সভাপতি খালেক গত ৫ বছর ধরে ভাড়ার সমস্থ টাকা উত্তোলন ও অত্মসাত করেছে। বিদ্যালয় ফান্ডে কোন টাকা জমা করেনি এবং দোকান ভাড়া দেওয়া নিষেধ করে দিয়েছে দেকানদারদের।

উল্লেখিত ঘটনায় এলাকা জুড়ে তীব্র নিন্দা-প্রতিবাদ ও সমালোচনা ঝড় উঠেছে। ফুঁসে উঠেছে আ’ম জনতা সহ শিক্ষক সমাজ। যে কোন মুহুর্তে কঠোর আন্দোলনের ডাক।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com