রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১১:৩৪ অপরাহ্ন

মাদারগঞ্জ রহমানিয়া খানকা শরীফ এর কিছু কথা

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : রবিবার, ৬ জুন, ২০২১
  • ২২৮ বার পঠিত

সুলতান আহমেদ সোনা।- মাদারগঞ্জ রহমাননিয়া খানকা শরীফ কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, আলহাজ্ব আব্দুর খালেক হাসানপুরী পীর ছাহেব কেবলা। সময়কালটা ছিল ১৯৫০ সাল। তিনি অনেকদিন হয় গত হয়েছেন কিন্তু তার প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান আজ ডাল পালা বিস্তার করেছে।আলোকিত সেই প্রতিষ্ঠানের খ্যাতি ছড়িয়ে পড়েছে দেশে,দেশের বাইরে। পীরে কামেল মরহুম আলহাজ্ব আব্দুল খালেক হাসানপুরী (রঃ) কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত সেই খানকা শরীফকে ঘিরে বেশ কটি প্রতিষ্ঠান বর্তমানে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে।

সম্প্রতি পীরগঞ্জ উপজেলর ১২নং মিঠিপুর ইউনিয়নের মাদারগঞ্জ হাট সংলগ্ন মাদারগঞ্জ রহমাননিয়া খানকা শরীফ কমপ্লেক্স ঘুরে দেখার সুযোগ হয়েছে আমার। এই প্রতিষ্ঠানটির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথাও জানার সুযোগ হয়েছে। বর্তমানে যার পরিকল্পনা ও পরিচালনায় “মাদারগঞ্জ রহমাননিয়া খানকা শরীফ কমপ্লেক্স” এর অগ্রগতি হচ্ছে দৃশ্যমান হচ্ছে উন্নয়ন, তিনি হলেন পীরজাদামোস্তফা আল আমিন ছাহেব। বলতে দিধা নেই, মোস্তফা আল আমিন হচ্ছেন এই অঞ্চলের একজন স্বনাম খ্যাত ব্যক্তিত্ব। তাঁর চাল-চলনে,আচার-ব্যবহারে,লেবাস-ছুরতে আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্বের প্রকাশ ঘটেছে।

পীরজাদা মোস্তফা আল আমিন মাদারগঞ্জ রহমানিয়া ফাজিল মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপ্যাল (উপাধ্যক্ষ) হিসেবে সুনামের সহিত ১৯৯৮ সাল থেকে শিক্ষকতা করছেন। একজন আদর্শ শিক্ষক হিসেবে প্রতিষ্ঠান ও প্রতিষ্ঠানের বাইরে তাঁর যথেষ্ঠ খ্যাতি আছে। বর্তমানে মাদারগঞ্জ ফাজিল মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ হলেও মোস্তফা আল আমিন ছাহেব পিতার স্বপ্নকে বাস্তবায়নের জন্য দিন রাত সমান করে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।বর্তমানে এখানে যে সব প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে তার মধ্যে রয়েছে ১। খালেকিয়া মফিজিয়া হাফেজিয়া মাদ্রসা ২। সিদ্দিকীয়া এতিম খানা ৩। লিল্লাহ বোর্ডি ৪। দারুল হিকমা পীর আব্দুল খালেক আইডিয়াল মাদ্রসা ৫। রিয়াজুল জান্নাত জামে মসজিদ।

সম্প্রতি পীরজাদা মোস্তফা আল আমিন এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, এই সব প্রতিষ্ঠান ফুরফুরা সিলসিলা দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। মোস্তফা আল আমিন জানান মাত্র ৯ শতক জমির উপরে তার পিতা মরহুম আলহাজ্ব আব্দুল খালেক হাসানপুরী (রঃ) কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত খানকা শরীফটিতে দ্বিতল মসজিদ ও এতিমখানা রয়েছে। কিন্তু কম জায়গায় ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা বাস্তাবায়ন করা সম্ভব নয় বলে, খানকা শরীফটির উত্তরে নিজ অর্থে বিশাল পরিসরে ‘দারুল হিকমাহ পীর আব্দুল খালেক আইডিয়াল মাদ্রাসা’ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। মোস্তফা আল আমিন আরো জানিয়েছেন,তাঁদের অনেকগুলো শাখা প্রতিষ্ঠান আছে। শাখা প্রতিষ্ঠানগুলো আছে, গাইবন্ধা জেলার গছুর বাজার, নলডাঙ্গায়, সুন্দরগঞ্জে। আছে রংপুরের পীরগছায়, শাখা আছে জেলা জামালপুরে, ময়মুনসিংহের শেরপুরে, দিনাজপুরের বালিয়াডাঙ্গীতে। জানা গেছে স্বচ্ছতার সাথে প্রতিষ্ঠানগুলো কমিটি দ্বারা পরিচালনা করা হচ্ছে। এখানে আছে ৩১ সদস্য বিশিষ্ঠ পরিচালনা কমিটি। এখানে প্রত্যেক ইসলামী পর্বে মাহফিল এর আয়োজন করা হয়। এখানে মোট ১৮ জন শিক্ষক শিক্ষাদানে নিয়োজিত আছেন। সব মিলে ৩০০জন শিক্ষার্থী এই প্রতিষ্ঠানে ইসলামী শিক্ষা গ্রহন করছেন। পীরজাদা মোস্তফা আলামিন দুঃখের সাথে বলেন, তার প্রতিষ্ঠানের এতিমদের জন্য পর্যাপ্ত বরাদ্দ না থাকায় কষ্টকরে এতিম খানা পরিচালনা করতে হয়। করোনা ভাইরাসের কারণে মাদরাসাটি সরকারী নির্দেশ মোতাবেক বন্ধ থাকলেও হাফেজিয়া মাদ্রাসাটি স্বাস্থ্য বিধি মেনে চালু রাখা হয়েছে। অনেকের মত আমরাও এই প্রতিষ্ঠানটির উন্নয়ন উন্নতি সমৃদ্ধি কামনা করছি ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com