1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০১:৩৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পীরগঞ্জের চৈত্রকোল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পরিচিত সভা পীরগঞ্জের প্রাণিসম্পদ অফিসারের বিরুদ্ধে অনিয়ম উৎকোচ গ্রহনের অভিযোগ গঙ্গাচড়ায় পানিবন্দি দুই হাজার পরিবার: ভাঙন ঝুঁকিতে বাঁধ তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট নবাবগঞ্জে ইউ.পি সদস্য আবারো ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার এখন কিছু চাইলেই সরকার পাশে এসে দাড়ায়-  সুলতান আহমেদ সোনা বগুড়ার শেরপুরে দুই শতাব্দীর কালের স্বাক্ষী পুরানো বটগাছ ধরাশায়ী পীরগঞ্জের ১০৫টি পরিবার প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর পেয়েছে   পীরগঞ্জে হস্তান্তরের আগেই ভেঙ্গে গেল ব্রীজ! কটিয়াদীর প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের চক্ষু চিকিৎসা সেবায় নতুন দ্বার উন্মোচন কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মেয়ে নিয়ে বখাটেদের আড্ডা: বাধা দেয়ায় হামলা

যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস: রিভিউর রায় ১ ডিসেম্বর

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৪ বার পঠিত

বজ্রকথা রিপোর্ট ।- যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস এমন অভিমত দিয়ে আপিল বিভাগের রায় পুনর্বিবেচনা (রিভিউ) চেয়ে করা আবেদনের ওপর ১ ডিসেম্বর রায়ের তারিখ ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোটের্র আপিল বিভাগ।

মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এক হত্যা মামলায় আপিল বিভাগের দেয়া ‘যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস’ রায়টি পুনর্বিবেচনা চেয়ে করা আবেদনের ওপর শুনানি শেষে রায়ের জন্য এই তারিখ ধার্য করা হয়। আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

আসামিপক্ষে শুনানিতে ছিলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন। গত বছরের ১১ জুলাই প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চে শুনানি শেষে মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রেখেছিলেন। তখন রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর বর্তমান অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন অ্যামিকাস কিউরি ছিলেন। গত বছরের ১১ এপ্রিল এ মামলায় চারজন অ্যামিকাস কিউরি নিয়োগ দিয়েছিলেন আপিল বিভাগ। তারা তাদের মতামত তুলে ধরেন। অ্যামিকাস কিউরিরা হলেন-ব্যারিস্টার রোকনউদ্দিন মাহমুদ, এএফ হাসান আরিফ, আব্দুর রেজাক খান ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন। তখন শুনানিতে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, যাবজ্জীবন সাজার একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ থাকতে হবে। আমাদের আইনে যাবজ্জীবন কারাদন্ড হিসেবে ৩০ বছর বলা আছে। যা রেয়াত পাওয়ার পর সাড়ে ২২ বছর হয়। উন্নত বিশ্বেও সাজার মেয়াদ বলে দেয়া হয়। সেখানে প্যারোল ব্যবস্থাও রয়েছে। ফলে দীর্ঘমেয়াদে কারাদন্ড প্রাপ্তদের দীর্ঘদিন কারাগারে থাকতে হয় না। কিন্তু আমাদের দেশে সে ব্যবস্থা নেই। তাই যাবজ্জীবন হিসেবে আমৃত্যু কারাদন্ড দেয়া হলে কারাগারগুলো বৃদ্ধাশ্রম হয়ে যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com