শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৪:১২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পীরগঞ্জ উপজেলার কমিউনিটি ক্লিনিক ও উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মেডিকেল সরঞ্জাম বিতরণ রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালী পরিদর্শনে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ মোস্তফা মহসিন সুন্দরগঞ্জে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত দিনাজপুর সার্কেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষা সম্পন্ন দিনাজপুরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উদযাপনে এ্যাডভোকেসী দিনাজপুরে বিআরটিএ’র  রিফ্রেসার প্রশিক্ষণ সম্পন্ন রংপুরে উপজেলা  চেয়ারম্যান প্রার্থীর উপর হামলার অভিযোগ দিনাজপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক রচনা ও বির্তক প্রতিযোগীতা   রংপুর বিভাগের নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান- ভাইস চেয়ারম্যানের শপথগ্রহণ

রংপুরে অব্যাহত গরম ও দাবদাহ ঝড়ে পড়ছে আম-লিচুর গুটি

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২৩
  • ২৩২ বার পঠিত

রংপুর থেকে বজ্রকথা প্রতিনিধি ।- প্রতিবছর চৈত্রের শেষে বৈশাখেরশুরুতেরংপুরঅঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টিহলেও এবার প্রকৃতি রুক্ষ আচরণ করছে। বৈশাখের খরতাপে দেখা নেই বৃষ্টি,কালবৈশাখীর। মেঘহীন আকাশে চলছে প্রখর রোদের খেলা।

এমন পরিস্থিতি চলছে রংপুরসহ এ অঞ্চলের প্রকৃতিতে। যা বৈশাখ মাসে হবার কথা ছিলনা। এরফলে সেচনির্ভর বোরোধান নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন কৃষকরা। এছাড়াও  রোদের কারণে ঝড়ে পড়ছে আম-লিচুর গুটি। এতে ফলনবিপর্যয়ের আশংষ্কা করছেন অনেকেই। এছাড়াও রোগবালাইও বাড়ছে।
এদিকে রংপুর নগরীসহ এ অঞ্চলে কোথায়ও ঝড় তো দূরের কথা কোথায়ও বৃষ্টির ছিটে ফোঁটার দেখা নেই। জলবায়ুর এই পরিবর্তনে মানুষ, ফসলসহ অন্যান্য প্রাণি জগতে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। তবে আবহাওয়া অফিস বলছে, দুই-একদিনের মধ্যে রংপুরসহ আশপাশ এলাকায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।
এদিকে রংপুর নগরীসহ উত্তরের আট জেলায় সেচনির্ভর বোরোধান নিয়ে চিন্তিত রয়েছে কৃষকরা। তাপদাহে ধানের চিটা হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এছাড়া আম-লিচুর গুটি ঝরেপড়ছে। এতে ফলন বিপর্য়য়ের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। তবে রংপুরের স্বাস্থ্য বিভাগ ও কৃষিবিভাগ এই অবস্থা থেকে উত্তোরণের জন্য মানুষকে বিভিন্ন পরামর্শ দিচ্ছেন।
আবহাওয়াবিদরা বলছেন, গ্রীষ্মকালে বা এপ্রিল- মে মাসে বাংলাদেশ ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে মাঝে মধ্যে বিকালের দিকে বজ্রবিদ্যুৎসহ  যে প্রচন্ড ঝড় বৃষ্টি হয় তাকে কালবৈশাখী বলে। কালবৈশাখী ঝড় উত্তরদিক থেকে প্রবাহিত হয়। এই ঝড়-বৃষ্টি অনেক সময় ক্ষতিকারক হলেও তপ্ত আবহাওয়া শীতল করতে ভূমিকা রাখে। প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায় বৈশাখে ঝড়-বৃষ্টি গুরুত্বপূর্ণ  হলেও এবার বৈশাখের এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও ঝড়-বৃষ্টির দেখা নেই।
এবার বৈশাখে ঝড়-বৃষ্টি না হওয়াতে প্রকৃতির প্রতিটি ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করছে। মানুষের ক্ষেত্রে ঘরে ঘরে জ্বর-সদি দেখা দিয়েছে। অনেক স্থানে ডায়রিয়ার প্রকোপও দেখা দিয়েছে। গরমের কারণে সবচেয়ে বেশি বেকায়দায় রয়েছে বয়স্ক ও শিশুরা। বয়স্ক ও শিশুদের মধ্যে বিভিন্ন রোগ দেখা দিয়েছে।
রংপুর আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মোস্তাফিজার রহমান বলছেন, এবার প্রকৃতি বিরুপ আচরণ করছে। তবে দুই একদিনের মধ্যে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি  জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com