1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০১:১০ অপরাহ্ন

রোহিঙ্গাদের বাদ দিয়ে আজ মিয়ানমারে নির্বাচন হচ্ছে

  • আপডেট সময় : রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৯ বার পঠিত

জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা অগ্রাহ্য করে রোহিঙ্গাদের ছাড়াই আজ রবিবার মিয়ানমারে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নির্বাচনে অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) আবারও জয়ী হবে বলে বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন।
নির্বাচনে সু চির দল এনএলডির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বি ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি। দলটি ওই দেশের সেনাবাহিনীর সমর্থনপুষ্ট বলে মনে করা হয়। সম্প্রতি ইউএসডিপির নেতা উ থান থে গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন যে রোহিঙ্গাদের নিয়ে মিয়ানমারের দুঃখিত হওয়ার কিছু নেই। রোহিঙ্গাদের ওপর ‘জেনোসাইড’ চালানোর অভিযোগে নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগের আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতে (আইসিজে) মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা চলছে। গত জানুয়ারি মাসে আইসিজে তার অন্তর্র্বতী আদেশে মিয়ানমারকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে ‘জেনোসাইড’ থেকে সুরক্ষার উদ্যোগ নিতে নির্দেশনা দিয়েছিল। মিয়ানমারে ভোটাধিকার, নাগরিকত্বসহ সব অধিকার কেড়ে নেওয়ার পর ‘নির্মূল অভিযানের’ নামে ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাকে হত্যাযজ্ঞ, ধর্ষণ, নির্যাতন-নিপীড়নের মাধ্যমে তাদের নিজ দেশ ছাড়তে বাধ্য করাকে পরিকল্পিত ‘জেনোসাইড’ হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে আইসিজের মামলায়। রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতির কোনো উন্নতি না হওয়ার বিষয়টি আইসিজের অন্তর্র্বতী আদেশের লঙ্ঘন বলে বিবেচিত হতে পারে। বিশেষ করে, আইসিজের আদেশ ও বিশ্বসম্প্রদায়ের নজরদারির মধ্যেও সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ না দেওয়ার বিষয়টি তাদের আরো একঘরে করার উদ্যোগ বলে এরই মধ্যে অভিযোগ উঠেছে।
বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় মিয়ানমারের নির্বাচনের দিকে নিবিড় দৃষ্টি রাখছে। কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের নতুন সরকারের মনোভাব কেমন হয় সেটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে বৈঠক আয়োজনের উদ্যোগ নিতে চীন প্রস্তুত আছে। প্রতিবেশী ভারতেরও অবস্থান রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসনের পক্ষে।আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বড় একটি অংশ রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়ানোর পক্ষে অবস্থান নিচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানমারকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে চাপে রেখেছে। নির্বাচনের পর মিয়ানমারের নতুন সরকারের ওপর এ চাপ আরো বাড়বে বলে কূটনৈতিক সূত্রগুলো ধারণা করছে।‘বার্মা ক্যাম্পেইন ইউকে’ নামের একটি সংগঠন গতকাল শনিবার অভিযোগ করেছে, অং সান সু চির সরকার নির্বাচনের প্রাক্কালে ২২৯ জন রাজনীতিককে গ্রেফপ্তার করে কারাগারে পাঠিয়েছে। ৫৮৪ জন রাজবন্দি বর্তমানে মিয়ানমারের কারাগারে বিচারের অপেক্ষায় আছেন। এর বাইরে এক লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে বন্দিশিবিরে আটকে রাখা হয়েছে। আজকের নির্বাচনে তাদের কেউই ভোট দিতে পারবে না। সংগঠনটির অভিযোগ, সু চির সরকার ক্ষমতা থাকা সত্ত্বে নির্বাচনের আগে রাজনীতিবিদদের মুক্তি দেয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com