রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৩১ অপরাহ্ন

শানেরহাটে হাঁস নিয়ে গোলযোগ : আহত ২

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ১৭ জুলাই, ২০২০
  • ৫৪৬ বার পঠিত
১। আহত ইব্রাহীমের মাথায় ৮ সেলাই  ২। হাসপাতালে আহত কাফুরা বেগম,    ছবি- বজ্রকথা। 

বজ্রকথা প্রতিনিধি।- পীরগঞ্জ উপজেলা (রংপুর) এর শানেরহাট ইউনিয়নে হাঁস চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষে ছোটভাই মাথা ফাঁটিয়েছে বড় ভাইয়ের, বড় বোনকে মারডাং করেছে। এই ঘটনা ঘটেছে ১৩ জুলাই সোমবার বিকেলে। জানা গেছে, মৃত কছর উদ্দিন এর পুত্র সোহরাব প্রধান গত ১২ জুলাই রবিবার পাথার থেকে নিজের হাঁসের পালের সাথে বড় ভাই ইব্রাহীম প্রধানের ১৯টি হাঁস ধরে নিয়ে গিয়ে বাড়িতে বন্দি করে রাখে। এই হাঁস ছেড়ে দেয়ার দাবী জানালে সোহরাব প্রধান ও তার স্ত্রী রানু বেগম হাঁসগুলোকে নিজের বলে দাবী করেন। শুধু তাই নয়, উভয় পক্ষের মধ্যে হাঁসের মালিকানা নিয়ে ঝগড়া বাক বিতন্ডা বাঁধে। তার পর ১৩ জুলাই সোমবার সেই চোরাই হাঁস পাশ্ববর্তী শানেরহাটে নিয়ে গিয়ে বিক্রি করার চেষ্টা করলে সোহরাবের বোন কাফুরা বেগম ও ভাই ইব্রাহীম বাধা দেয় এবং প্রতিবাদ করেন। পরে ইব্রাহীম হাটে গেলে সেখানে সোহরাব প্রধান ও তার অপর ভাই ইদ্রীস আলী মিলে ইব্রাহীমের উপর চাড়াও হন, মারডাং করে মাথা ফাঁটিয়ে দেন। শুধু তাই নয়, বাড়ীতে ফিরে এসে বড় বোন কাফুরা বেগমকে একা পেয়ে তাকেও মারডাং করে আহত করেন। আহতদেরকে অবরোধ করে রাখেন। এই ঘটনার পর পুলিশে খবর দেয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে এবং পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেয়ার সুযোগ করে দেয়। এই ঘটনায় ইব্রাহীমের মাথায় ৮টি সেলাই দিতে হয়েছে এবং আহত কাফুরা বেগম হাসপাতালে ভর্তি হন। এ ব্যাপারে বাদী হয়ে ইব্রাহীম পীরগঞ্জ থানায় এজাহার করেছে। এই ঘটনার পর আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে সোহরাব প্রধান। তার নামে থানায় এজাহার করায় আবারো মারডাং করার হুমকি দিয়ে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com