শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পীরগঞ্জ উপজেলার কমিউনিটি ক্লিনিক ও উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মেডিকেল সরঞ্জাম বিতরণ রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালী পরিদর্শনে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ মোস্তফা মহসিন সুন্দরগঞ্জে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত দিনাজপুর সার্কেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষা সম্পন্ন দিনাজপুরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উদযাপনে এ্যাডভোকেসী দিনাজপুরে বিআরটিএ’র  রিফ্রেসার প্রশিক্ষণ সম্পন্ন রংপুরে উপজেলা  চেয়ারম্যান প্রার্থীর উপর হামলার অভিযোগ দিনাজপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক রচনা ও বির্তক প্রতিযোগীতা   রংপুর বিভাগের নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান- ভাইস চেয়ারম্যানের শপথগ্রহণ

ঘোড়াঘাটে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র 

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৪৩ বার পঠিত

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর), প্রতিনিধি।- দিনাজপুর ঘোড়াঘাটে সিংড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রটি চলছে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে। গরু ছাগল রাখার পরিবেশ না থাকলেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলছে চিকিৎসা প্রদান।
১৯৭৮ সালে জনগনের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌছে দিতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়ের অর্থায়নে ঘোড়াঘাট উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত হয়।
জনবল হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয় ১জন উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার, ১জন ফার্মাসিস্ট, ১জন পঃপঃ পরিচালক, ১জন পরিবার কল্যান পরিদর্শিকা, ১জন আয়া ও ১জন পিয়ন। এতে করে ইউনিয়নের দরিদ্র, অতি দরিদ্রসহ মধ্যবিত্ত পরিবারগুলো ছোটখাটো চিকিৎসা সেবা পেয়ে আসছে।
ঘোড়াঘাটে ৩নং সিংড়া ইউনিয়নের রানীগঞ্জ বাজাওে অবস্থিত ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রটি দীর্ঘদিন থেকে ব্যবহারের অনোপযোগী হলেও কোনোদিন সংস্কার কাজ হয়নি। কয়েকবার শুধুমাত্র রং করা হলেও ছাদ ছুইয়ে পানি পড়া,জানালা,দরজাসহ আসবাবপত্রের কোনো পরিবর্তন হয়নি।
কল্যানকেন্দ্রটির সামনে নিচু হওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতে পানি জমে পরিবার কল্যান কেন্দ্রে যাতায়ত কষ্টকর হয়ে পড়ে।ছাদ থেকে চুইয়ে পড়ে আসবাবপত্র নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। বিল্ডিংটি ডেমেজ হওয়ায় কর্তব্যরত জনবলকে জীবনের ঝুকি নিয়ে চিকিৎসা ও অফিসে কাজ করতে হচ্ছে। ছাদ ধসে প্রতিটি কক্ষের ঢালাইয়ের রড বের হয়ে গেছে। কখন ছাদ থেকে প্লাস্টার খসে পড়ে আহত হয় এমন চিন্তা কর্তব্যরত জনবলের।

এই ব্যাপারে সিংড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডাঃ হাসনেয়ারা ও ফার্মাসিস্ট রেজাউল করিমের সাথে কথা হলে তারা জানান, বিষয়টি বার বার তুলে ধরা হয়েছে কিন্তু কোনো সুরাহা হয় নি। তাদেরকে জীবনের ঝুকি নিয়ে ডেমেজ বিল্ডিংয়ের কক্ষে বসে চিকিৎসা সেবা দিতে হচ্ছে।
খোজ নিয়ে জানা গেছে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার হিসেবে নিয়োগে রয়েছেন ডাঃ সেকেন্দার আলী। তিনি গাইবান্ধা থেকে সপ্তাহে ১ দিন এসে কাগজপত্র সই স্বাক্ষর করে যান। একজন সরকারী কর্মকর্তা হিসেবে সপ্তাহে ১দিন অফিস করে হাজার হাজার টাকা বেতন তুলে নিয়ে যাচ্ছেন যা দেখার কেউ নেই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com