রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০১:১৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
জনগণের কাছে বিএনপি’র ক্ষমা প্রার্থনা করা উচিত-গোপাল এমপি দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের শ্রদ্ধা দিনাজপুর জেলা আ: লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২২ সফল করতে প্রস্তুতি সভা পার্বতীপুরে এড.মোস্তাফিজুর রহমান এম পি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন গাইবান্ধায় ৮৩ হাজার ৫৭০ জন পাবেন বিনামূল্যে বীজ নেচে-গেয়ে দর্শক মাতালো সাঁওতাল তরুণীরা সাফল্য সাহত্যি সংস্কৃতি পরিবার বাংলাদশে এর লেখক পাঠক মলিনমলো গাইবান্ধা সদরে আশ্রয়ণের ঘর পেয়েও থাকেন ভাড়া বাসায় রংপুরে লেখক পাঠক মিলন মেলা ২০২২ সাদুল্লাপুরে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা ১২ হাজার ৪০ হেক্টর

চতরায় সাবেক সাংসদ আব্দুল জলিলের স্মৃতি রক্ষায় নারিকেল গাছ লাগানো অব্যাহত রয়েছে

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১৩ জুলাই, ২০২০
  • ২৩৬ বার পঠিত

কনক আচার্য।-গাছ মানুুষের বন্ধু। গাছ সম্পদ। গাছ ফল দেয়,খাদ্য দেয়, ছায়া দেয় নিরাপত্তা দেয়, প্রাণিদের বাঁচার জন্য অক্সিজেন দেয়, আসবাবপত্র দেয়, জ্বালানীর বড় যোগানদাতা গাছ। বিপদে পড়লে গাছ টাকাও দেয়। হাদীসে রয়েছে বৃক্ষ রোপন ছদকায়ে জারিয়া। এক কথায় গাছ লাগানো সওয়াবের কাজ। এখন বর্ষা মৌসুম গাছ লাগানোর উপযুক্ত সময়। তাই সময় বিচারে পীরগঞ্জ উপজেলার ১৪ নং চতরা ইউনিয়নের সকল সড়কে প্রায় কুড়ি হাজার নাড়িকেল গাছ লাগানোর ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক সাংসদ প্রয়াত আব্দুল জলিল প্রধান ও সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলেয়া জলিলের প্রবাসী কন্যা জুঁই তাজুল্লী ফেরদৌসী। গত জুন থেকে এই নারিকেল চারা লাগানো কর্মসূচী শুরু করা হয়েছে। গত ৬ জুন ২০২০ তারিখে এই কর্মসূচীর উদ্বোধন করেছেন পীরগঞ্জের ভূতপূর্ব ইউএনও টি.এম.এ মমিন। এই কর্মসূচী চলমান রয়েছে। নারিকেল গাছ লাগানোর কাজে নিয়োজিত রয়েছে এলাকার বেশ কিছু উদ্যমী যুবক। এই কর্মসূচী দেখভাল করছেন, মরহুম আব্দুল জলিলের পত্নী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আলেয়া জলিল। উল্লেখ্য, সাবেক সাংসদ আব্দুল জলিল ১৯৭২ থেকে ১৯৭৯ সাল পর্যন্ত চতরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে পরিবেশ উন্নয়ন, বৃক্ষরোপনে নাগরিকদের উৎসাহ প্রদান এবং স্বনির্ভর ইউনিয়ন পরিষদ গড়ে তোলার লক্ষ্যে নিজ এলাকার সকল রাস্তায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে ৮০ হাজার নারিকেল গাছ লাগিয়েছিলেন। কিন্তু অভিযোগ রয়েছে, পরবর্তী সময়ে যারা চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন, তারা কেউই গাছগুলোর যত্ন নেননি। যে কারণে ৬০ হাজার গাছ মরে গেছে। এখনও কুড়ি হাজারের মত গাছ ফল দিচ্ছে। সে কারণে পিতার স্মৃতি রক্ষায় আবারো নারিকেল গাছ লাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আলেয়া-জলিল পরিবারের ফ্রান্স প্রবাসী কন্যা জুঁই তাজুল্লী ফেরদৌসী। এলাকার মানুষ জুঁই এর উদ্যোগে খুশি হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com