মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:১০ পূর্বাহ্ন

দিওড় ইউনিয়নের মানুষ আঃ মালেক কে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় 

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট, ২০২০
  • ১৩৮ বার পঠিত

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকে সৈয়দ হারুনুর রশীদ।- দিনাজপুর বিরামপুর উপজেলার একজন সমাজ সেবক হিসেবে  এলাকার সর্বস্তরের মানুষ আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আঃ মালেক মন্ডলকে ৪ নং দিওড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়।

মানবতার দৃষ্টি-৪ নং দিওড় ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের কাঁচা রাস্তার অতিরিক্ত কাঁদা জনিত কারণে পথচারীদের চরম দূভোগ দেখে জনসাধারণের চলাচলের সুবিধা ফিরে আনতে আঃ মালেক মন্ডল নিজ তহবিল থেকে সামর্থ অনুযায়ী সহযোগিতা দিয়ে
৪ নং দিওড় ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের কাঁদা রাস্তা পর্যায়ক্রমে প্রতিদিনই নিজে সরাসরি ঘুরে ঘুরে পরিদর্শন করছেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের ক্লান্তিকালে সচেতনতা মুলক আলোচনা সহ সকল কে একটি করে মাস্ক উপহার দিচ্ছেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ আঃ মালেক মন্ডল।

দিওড় ইউনিয়নের কাঁচা রাস্তাগুলি-এ-পর্যন্ত তৃতীয় বার অতিরিক্ত কাঁদার ভোগান্তি নিরাসনে সংস্কার করেই চলেছে  আঃ মালেক মন্ডল!

দেশের অভ্যন্তরের প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলের মফস্বল এলাকা বিরামপুরের দিওড় ইউনিয়নে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সচেতনতা মূলক কর্মকান্ডসহ ভুক্তভোগী অসহায় মানুষের সাহায্য সহযোগিতায় আঃ মালেক মন্ডল অনন্য ও অদ্বিতীয় ভুমিকা পালন করে চলেছেন।  সর্বপরি সকল জনকল্যাণমুখী কর্মকাণ্ডে অত্যন্ত  সন্তুষ্ট বিরামপুর উপজেলা তথা ৪ নং দিওড় ইউনিয়নের সর্বস্তরের মানুষ।

এ ব্যাপারে আঃ মালেক মন্ডলের জিজ্ঞাসায় তিনি  বলেন,আমি মূলত একজন সাধারণ মানুষ হিসাবে মানবিক দায়িত্ব ও সরকারের নির্দেশনা এবং আমার শ্রদ্ধেয় দিকনির্দেশক মোঃ শিবলী সাদিক (এমপি) ও বিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ খাইরুল আলম (রাজু) মামার অনু-প্রেরনায় এলাকার উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছি।

পরিশেষে তিনি আরো বলেন,আমরা যেন এই মহামারি করোনা থেকে বাঁচতে পারি,তাঁর জন্য সরকারের দেওয়া নির্দেশনা ও সকল বিষয়ে সচেতন থেকে চলাফেরা করি।

এরই ধারাবাহিকতায় দিওড় ইউনিয়ন-এর প্রতিটি পাড়া গ্রাম মহল্লায় ও হাট বাজারে সচেতনতা মূলক আলোচনা সহ মাস্ক বিতারণ করে যাচ্ছি,আমি আপনাদের পাশে আছি থাকবো-ইনশাল্লাহ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com