বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:০৮ অপরাহ্ন

নেচে-গেয়ে দর্শক মাতালো সাঁওতাল তরুণীরা

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২
  • ৩০ বার পঠিত
ছাদেকুল ইসলাম রুবেল।- গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল নারীদের ক্রীড়া ও ঐতিহ্যবাহী তীর ছোড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এ অনুষ্ঠানে নেচে-গেয়ে দর্শক মাতালো একঝাঁক সাঁওতাল নারী। এসময় দর্শকরা মনভরে উপভোগ করলেন তাদের অসাধারণ নান্দনিক পরিবেশনা।
  ২৬ নভেম্বর শনিবার    গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বাগদাফার্ম জয়পুর মাঠে নাগরিক সংগঠন জনউদ্যোগের ক্রীড়া ও ঐতিহ্যবাহী তীর ছোড়া প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক উৎসব ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আদিবাসী-বাঙালি সংহতি পরিষদের আহবায়ক ও জেলা বারের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক ওয়াজিউর রহমান রাফেল, সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ফিলিমন বাস্কে, জনউদ্যোগের কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব তারিক হোসেন মিঠুল, জনউদ্যোগের জেলা সদস্য সচিব প্রবীর চক্রবর্তী, মানবাধিকার কর্মী অঞ্জলী রানী দেবী, গোলাম রব্বানী মুসা, আদিবাসী নেত্রী প্রিসিলা মুরমু, জনউদ্যোগ সদস্য মাহাবুবুর রহমান মজনু, জুলফিকার আহমেদ গোলাপ, মহেন্দ্রনাথ সেন, সেলিনা বাবু, সোলাইমান আহমেদ, নজরুল ইসলাম, শালিমা জান্নাত তমা প্রমুখ।সমাবেশে বক্তারা বলেন, সমতলের আদিবাসীরা বিলুপ্ত হওয়ার পথে। শুধু আদিবাসীই বিলুপ্ত হচ্ছে না, তাদের সংস্কৃতিও বিলুপ্ত হচ্ছে। তারা বাংলাদেশের দরিদ্রতম জনগোষ্ঠী। অধিকাংশই ভূমিহীন, তাদের হাতে ভূমি নেই। আদিবাসীরা জাতীয়তাবাদী ঘৃণার শিকার। আদিবাসীদের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় আদিবাসী মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা, এবং তাদের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় অবিলম্বে তাদের জন্য পাঠ্যপুস্তক, তাদের ভাষা ও সংস্কৃতিকে রক্ষায় সরকারি উদ্যোগ নেয়ার দাবি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com