শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১০:০১ পূর্বাহ্ন

রংপুর মেডিকেল স্টাফ কোয়ার্টারে আধিপত্য বিস্তারে নিয়ে  যুবক কুপিয়ে হত্যা: আদালতে ৫ জনের দায় স্বীকার

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০
  • ১৫৫ বার পঠিত

রংপুর প্রতিনিধি।-রংপুর মেডিকেলের স্টাফ কোয়ার্টার পূর্বগেট এলাকায় অধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিরোধের জেরে জাহিদুন নবী সোহেলকে (৩২) নামের এক যুবককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত ৫ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে।
সোমবার বিকেলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি ও মিডিয়া) উত্তম প্রসাদ পাঠক। তিনি জানান, গত ১১ জুলাই সন্ধ্যায় রংপুর মেডিকেলের স্টাফ কোয়ার্টারের নার্সিং কলেজের সামনে জাহিদুন নবী সোহেলকে (৩২) ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করা হয়। পরে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে সোহেল চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১১টায় মারা যায়।
এ ঘটনায় নিহতের মা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র নার্স হাসিনা খাতুন বাদী হয়ে কোতয়ালী থানায় ১২ জুলাই মামলা দায়ের করে। পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত মেডিকেল পূর্বগেট গ্রামের মতিন ওরফে ডোম মতিনের ছেলে সাদ্দাম হোসেন সোহাগ (২৭), পান্ডারদিঘির খতিবর রহমানের ছেলে আল ইবনে আজিম ওরফে ব্রিটিশকে (৩১) কে লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার দইখাওয়া গ্রাম থেকে গত ১৭ জুলাই ভোরে গ্রেফতার করে।
গ্রেফতার হওয়ায় আসামীদের রবিবার বিকেলে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালতের বিচারক দেলোয়ার হোসেনের আদালতে হাজির করা হলে তারা ঘটনার সাথে জড়িত বলে স্বেচ্ছায় ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।
এর আগে ১৪ জুলাই শিমুল বাগের আশিক মিয়া অপু, আনাম হোসেন আফ্রিদি, বরকত উল­াহ্ আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দেয়।
উত্তম প্রসাদ পাঠক বলেন, সোহেল হত্যাকান্ডের ঘটনায় আমরা দ্রæততার সাথে আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। আসামীরা আদালতের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। মামলার সাথে জড়িত অপর আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com