বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৩:৩০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পার্বতীপুরে গুরুত্ব ও সচেতনতা বিষয়ক কর্মশালা পার্বতীপুরের রেলওয়ে কেন্দ্রীয় লোকোমোটিভ কারখানায় স্বল্প জনবল দিয়েই চলছে নির্ধারিত কার্যক্রম রাজাকাররা কোটার নামে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করছে -হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বড়পুকুরিয়ায় ১২টি গ্রাম  ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া জীবন ও সম্পদ রক্ষা কমিটির মানববন্ধন পীরগঞ্জ সাঈদের দাফন সম্পন্ন কোটা বিরোধী আন্দোলনে নিহত শিক্ষার্থী সাঈদের বাড়ীতে শোকের মাতম নেটওয়ার্কের সক্ষমতা বাড়াতে এআই যুক্ত করার ঘোষণা হুয়াওয়ের রংপুরে কোটা বিরোধী আন্দোলন এক শিক্ষার্থী নিহত তৃণমূল পর্যায়ে চিকিৎসার মান উন্নত করলে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক রোগী শুন্য হবে-স্বাস্থ্যমন্ত্রী  

সশস্ত্র হামলা হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এমরান খানের উপর

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৪ নভেম্বর, ২০২২
  • ৪২৬ বার পঠিত

ডেক্স রিপোর্ট।- সশস্ত্র হামলা হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও ক্রিকেটার ইমরান খানের ওপর ।

ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) দলের লং মার্চ কর্মসূচি চলাকালে পাঞ্জাবের ওয়াজিরাবাদে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

৩ নভেম্বর এমরান খানকে লক্ষ্য করে গুলি করা হলে তিনি প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন; তবে তাঁর পায়ে গুলি লেগেছে। গণমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, হামলার ঘটনায় ইমরানের এক সমর্থক নিহত হয়েছেন। হামলায় জড়িত সন্দেহে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।হামলার পর ইমরান খানকে পাঞ্জাবের লাহোরের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়।

ঘটনার পর পাকিস্তানের গণমাধ্যমে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। টুইটারে প্রকাশিত ওই ভিডিওতে দেখা যায়, হামলায় জড়িত সন্দেহে আটক এক যুবক গুলিবর্ষণের ঘটনা স্বীকার করে বক্তব্য দিচ্ছেন।

ভিডিওতে যুবকটি বলছিলেন, ‘তিনি (ইমরান খান) দেশকে বিপথে নিয়ে যাচ্ছেন এবং আমি এটি দেখে সহ্য করতে পারছি না। এ জন্য আমি তাঁকে হত্যা করতে চেয়েছিলাম। আমি তাঁকে হত্যার সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছিলাম। আমি শুধু ইমরান খানকে হত্যা করতে চেয়েছিলাম, অন্য কাউকে নয়।

গত শুক্রবার থেকে পাকিস্তানে লং মার্চ কর্মসূচি শুরু করেন ইমরান খান। আগাম নির্বাচন এবং গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবিতে মাঠে নেমেছেন তিনি। আগামী ১১ নভেম্বর রাজধানী ইসলামাবাদে এই লং মার্চ প্রবেশ করার কথা। ইমরান খানের লং মার্চ নিয়ে কিছু দিন ধরে পাকিস্তানে রাজনৈতিক উত্তেজনা বাড়ছিল। প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের নেতৃত্বাধীন জোট সরকার লং মার্চ ঠেকাতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল। কিন্তু আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দেন।

লং মার্চকে কেন্দ্র করে শাহবাজ শরিফের ভাই নওয়াজ শরিফের নেতৃত্বাধীন দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ (পিএমএল-এন), সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারির নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) এবং সরকারের শরিক অন্য দলগুলো ইমরানকে নানাভাবে রাজনৈতিক আক্রমণ করছিল। এর পাল্টা ইমরান খানও ক্ষমতাসীন জোটকে ‘চোর’ আখ্যা দিয়ে বক্তব্য দিচ্ছিলেন। প্রভাবশালী সেনাবাহিনীকে উদ্দেশ্য করেও নানা ধরনের মন্তব্য করছিলেন তিনি। এর মধ্যে এই হামলার ঘটনা ঘটল।

জোট সরকার ও সেনাবাহিনী হামলার নিন্দা জানিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফও হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। ২০১৭ সালে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হওয়ার পর শীর্ষ কোনো রাজনীতিকের ওপর এটি বড় হামলার ঘটনা। সূত্র: ডন, জিও টিভি

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com