রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১০:৩৬ অপরাহ্ন

স্বামীর অনৈতিক কাজে বাঁধা লাশ হলো পোশাগী

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৩১ মে, ২০২১
  • ২০৮ বার পঠিত

বজ্রকথা প্রতিনিধি।- রংপুরের পীরগঞ্জে পুত্রবধুর সাথে পরকীয়ায় বাঁধা দেয়ায় লাশ হলো শ্বাশুড়ী পোশাগী বেগম। ৩০ মে/২১ খ্রি: রবিবার উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরাবাদ মধ্য পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ এই ঘটনায় অভিযুক্ত শ্বশুর কফিল উদ্দিনকে আটক করে ৩১ মে/২১ খ্রি: সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।এলাকাবাসি সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাচগাছী ইউপির জাহাঙ্গীরাবাদ মধ্যপাড়া গ্রামের কফিল উদ্দিনের সাথে প্রায় ৪০ বছর আগে একই ইউনিয়নের পানেয়া গ্রামের পোশাগী বেগমের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ২ ছেলে- মেয়ে।কফিলের ছেলে বহুরুল ইসলাম (৩৫) তার স্ত্রী মনিরা বেগমকে বাড়ীতে রেখে প্রায় ১০ বছর ধরে রাজধানী ঢাকায় রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ কওে আসছে। মাঝে মধ্যে বাড়ীতে আসা-যাওয়া করে। সাম্প্রতিক সময়ে ছেলে বহুরুল দীর্ঘদিন বাড়ীতে অনুপস্থিত থাকার সুযোগে কফিল উদ্দীন তার পুত্রবধু মনিরার সাথে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে গ্রামে একাধিকবার শালিশ হয়েছে বলে জানা যায়।
কফিল ঘটনার সত্যতা স্বীকারও করে বলে জানা যায়।
এ ব্যাপারে ছেলে বহুরুলকে তার মা পোশাগী বেগমসহ প্রতিবেশিরা এ ঘটনা অবগত করলেও সে তার বাবার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। এক পর্যায়ে গত ২৭ মে গভীর রাতে কফিল তার পুত্রবধুর সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। এসময় শ্বাশুড়ী পোশাগী বেগম তাদের হাতে নাতে ধরে ফেলে। এর পর কফিল তার স্ত্রী পোশাগীকে এলোপাতাড়ী মারপিট করলে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। এমতাবস্থায় বাড়ীতে চিকিৎসাধী অবস্থায় রবিবার বিকেলে পোশাগী মারা যায়। এ ঘটনায় পোশাগীর ছোট ভাই মীর মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে তার ভগ্নীপতি কফিল, ভাগনে বউ মনিরা, ভাগনে বহুরুলকে আসামী করে পীরগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। ওসি সরেস চন্দ্র বলেন, মামলার প্রধান আসামী শ্বশুর কফিল উদ্দীনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা চলছে। লাশ রংপুর মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com