রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
জনগণের কাছে বিএনপি’র ক্ষমা প্রার্থনা করা উচিত-গোপাল এমপি দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের শ্রদ্ধা দিনাজপুর জেলা আ: লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২২ সফল করতে প্রস্তুতি সভা পার্বতীপুরে এড.মোস্তাফিজুর রহমান এম পি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন গাইবান্ধায় ৮৩ হাজার ৫৭০ জন পাবেন বিনামূল্যে বীজ নেচে-গেয়ে দর্শক মাতালো সাঁওতাল তরুণীরা সাফল্য সাহত্যি সংস্কৃতি পরিবার বাংলাদশে এর লেখক পাঠক মলিনমলো গাইবান্ধা সদরে আশ্রয়ণের ঘর পেয়েও থাকেন ভাড়া বাসায় রংপুরে লেখক পাঠক মিলন মেলা ২০২২ সাদুল্লাপুরে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা ১২ হাজার ৪০ হেক্টর

গাইবান্ধায় কৃষকের স্বপ্ন কেড়ে নিল প্রতিপক্ষ

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ১১ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৩ বার পঠিত
ছাদেকুল ইসলাম।- কৃষক জয়দুল হক (৭০)। রোপন করছিলেন উন্নত জাতে কলা চারা। আর কিছুদিন পর ফলন পাওয়ার সম্ভাবনা ছিল। এ থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন বুনছিলেন। এরই মধ্যে শত্রুতা পোষণ করে প্রায় ১০০ কলাগাছ কেটে সাবার করেছে দৃর্বৃত্তরা।
বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) সকালে গাইবান্ধার উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের দক্ষিণ সাহাবাজ (হিন্দুপাড়া) গ্রামের কৃষক জয়দুল হক দেখতে পান তার কলাগাছগুলো কেটে ফেলার দৃশ্য। এ নিয়ে চরম হতাশায় ভুগছেন এই কৃষক। বুধবার (৯ নভেম্বর) রাতে শত্রুরা এই কাণ্ড চালিয়েছে বলে জানা গেছে। এ তথ্য নিশ্চিত করে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক জয়দুল হক জানান, লাভের আশায় খুব কষ্ট করে তার ধানক্ষেত সংলগ্ন রাস্তার পাশ দিয়ে ১০০ কলাগাছ রোপন করছিলেন। গাছগুলো লাগানো বেড়ে ওঠা পর্যন্ত অনেক পরিশ্রম করেছেন। এতে প্রায় ১৫ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছে তার।
তিনি আরও বলেন, অনেক স্বপ্ন ছিল গাছে কলা বিক্রির টাকায় নিজের অভাব-অনাটন দূর হবে। এখন আর সেটা হলো না। দূর্বৃত্তরা আমার স্বপ্নকে ধ্বংস করেছে। আমি এর সঠিক বিচার চাই।
এবিষয়ে জয়দুলের ছেলে মাহাবুব আলম বলেন, আমরা যখন কলাগাছ রোপন করি, তখন স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তি বাঁধা প্রদান করেন। কিন্তু আমরা সেই বাঁধা উপেক্ষা করে কলাগাছ লাগিয়ে ছিলাম। গাছ লাগানোর কয়দিন পরে আবার তারা আমাদের বলেন এই কলাগাছ থাকবে না। রাতের অন্ধকারে কেটে ফেলবো। ওদের এধরণের কথা আজকের এই গাছ কর্তনে বিষয়টি পরিষ্কার হলো। এই কাজ ওরাই করেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com