বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০২:৪৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পার্বতীপুরে গুরুত্ব ও সচেতনতা বিষয়ক কর্মশালা পার্বতীপুরের রেলওয়ে কেন্দ্রীয় লোকোমোটিভ কারখানায় স্বল্প জনবল দিয়েই চলছে নির্ধারিত কার্যক্রম রাজাকাররা কোটার নামে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করছে -হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বড়পুকুরিয়ায় ১২টি গ্রাম  ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া জীবন ও সম্পদ রক্ষা কমিটির মানববন্ধন পীরগঞ্জ সাঈদের দাফন সম্পন্ন কোটা বিরোধী আন্দোলনে নিহত শিক্ষার্থী সাঈদের বাড়ীতে শোকের মাতম নেটওয়ার্কের সক্ষমতা বাড়াতে এআই যুক্ত করার ঘোষণা হুয়াওয়ের রংপুরে কোটা বিরোধী আন্দোলন এক শিক্ষার্থী নিহত তৃণমূল পর্যায়ে চিকিৎসার মান উন্নত করলে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক রোগী শুন্য হবে-স্বাস্থ্যমন্ত্রী  

দরিদ্র পরিবারে ৪ হাত ও ৪ পা নিয়ে শিশুর জন্ম

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৫ জুন, ২০২১
  • ১৫৭ বার পঠিত

হারুন উর রশিদ সোহেল।- দিনাজপুরের কাহারোলে চার হাত ও চার পা নিয়ে এক ছেলেশিশুর জন্ম হয়েছে। যাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালের ৫ম তলায় শিশু বিভাগে অদ্ভুদ আকৃতির শিশুটি চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এদিকে দরিদ্র পরিবারে জন্ম নেয়া শিশুটিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও মিলছে না কাঙ্খিত চিকিৎসা সেবা। এখনও দেয়া হয়নি বেড। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অসহযোগিতার কারণে শিশু বিভাগের মেঝেতেই নামমাত্র চিকিৎসা চলছে। শিশুটির পরিবারের আর্থিক সংকট থাকায় অন্য কোন হাসপাতালেও চিকিৎসার জন্য ভর্তি করাতে পারছে না। এনিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে পরিবার। শিশুটির পিতা ও মামার সাথে কথা বলে এমনটাই জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দিনাজপুরের বীরগঞ্জে গত শুক্রবার ভোরে অদ্ভুদ আকৃতির শিশুটির জন্ম হয় দরিদ্র রুনা আক্তার-গোলাম রাব্বানী নামের এক দম্পত্তির ঘরে। এই দম্পতির বাড়ি দিনাজপুরের কারারোল উপজেলার মুকুন্দপুর গ্রামে। এদিকে এ খবর চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে বীরগঞ্জ উপজেলা সদরে অবস্থিত বীরগঞ্জ ক্লিনিকে জন্ম নেওয়া অদ্ভুদ আকৃতির শিশুটিকে দেখতে শত শত মানুষ ভীড় জমায় ক্লিনিকের সামনের। ভীড় এড়াতে ক্লিনিক মালিক রংপুর মেডিকেল ভর্তি করার পরামর্শ দিয়ে দ্রæত ছাড়পত্র দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেন শিশুসহ প্রসুতিকে। শুক্রবার রাতে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ বিষয়ে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আফরোজ সুলতানা লুনা জানান, অনেক সময় নানা ধরণের জটিলতার কারনে এ ধরণের শিশুর জন্ম হয়। উন্নত দেশে এ ধরণের জন্ম নেওয়া শিশুর চিকিৎসা সুবিধা থাকলেও আমাদের দেশে এ ধরণের শিশুকে বাঁচিয়ে রাখা কঠিন এবং ব্যয়বহুল।

প্রসুতির মামা রবিউল ইসলাম জানান, প্রসব বেদনা শুরু হলে বৃহস্পতিবার দিবাগত ৩টায় তার ভাগ্ননী রুনা আক্তারকে বীরগঞ্জ ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সেখানে কোন প্রকার অপারেশন ছাড়াই শুক্রবার ভোর ৫টায় একটি ছেলে সন্তান জন্ম নেয়।

রমেক হাসপাতালের শিশু বিভাগের চিকিৎসক উপেন্দ্র নাথ রায় জানান, দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার মুকুন্দপুর গ্রামের এক দরিদ্র পরিবারে চার হাত ও চার পা নিয়ে এই শিশুর জন্ম হয়েছে।

তিনি বলেন, “এটি একটি বিরল ঘটনা, যা আগে আমি কখনও দেখিনি। তবে শিশুটি সুস্থ রয়েছে। আমরা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখেছি। সিনিয়র চিকিৎসকের পরামর্শে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।” শিশুর চিকিৎসা ও বেড দেয়ার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলেও তিনি বলেন, বিষয়টি আমি বলে দিচ্ছি।

প্রসুতির স্বামী মোঃ গোলাম রাব্বানী জানান, তিনি পেশায় একজন দিনমজুর। তার আরও একটি ৬বছরের মেয়ে সন্তান আছে। সে স্বাভাবিক ভাবে জন্ম গ্রহণ করেছে। তবে আজকে জন্ম নেওয়া অদ্ভুদ আকৃতির শিশুটি এখন পর্যন্ত সুস্থ্য থাকলেও তাকে নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েছে। শিশুটির চিকিৎসায় একদিকে আর্থিক সংকট অন্য দিকে সমাজের লোকজনের নানা কথা শুনতে হচ্ছে তার পরিবারকে। শুক্রবার রাতে প্রসুতিসহ শিশুটিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে সেখানেই শিশুটির চিকিৎসা চলছে। তবে এখনো বেড দেয়া হয়নি। মেঝেতে রেখেই তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আমি গবীর মানুষ এখন কি করবো বুঝতে পারছি না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com