রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৬:০৮ অপরাহ্ন

প্রণব মুখার্জির শেষকৃত্য পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্পন্ন

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৬৯ বার পঠিত

বজ্রকথা ডেক্স।- নয়াদিল্লিতে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির শেষকৃত্য পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্পন্ন হয়েছে। ১ সেপ্টেম্বর বিকালে দিল্লির লোদি রোডের শ্মশানে সে দেশের ১৩তম রাষ্ট্রপতিকে গান স্যালুটের মাধ্যমে শেষ বিদায় জানানো তার আগে ভারতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর তিন প্রধান তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। সাবেক রাষ্ট্রপতি ভারতীয় সেনাবাহিনীর সুপ্রিম কমান্ডার ছিলেন। সন্ধ্যায় প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রপতির দেহ অস্থি হরিদ্বারে বিসর্জন দেওয়া হয়েছে।এর সথে অবসান হলো পাঁচ দশক দিল্লিতে দাপিয়ে বেড়ানো এক বর্ণময় বাঙালি রাজনীতিবিদ প্রণব মুখার্জি যুগের।
প্রায়ত প্রণব মুখার্জি প্রায় তিন সপ্তাহ চিকিৎসাধীন থাকার পর গত সোমবার দিল্লির সেনা হাসপাতালে পরলোক গমন করেন। বাড়িতে পড়ে গিয়ে মাথায় চোট পান ভারতের বাঙালি এই রাষ্ট্রপতি। গত ১০ আগস্ট থেকে তিনি মস্তিষ্কে আঘাত ও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।এ কারণে অন্তেষ্টিক্রিয়ায় নিকট পরিবারবর্গ ছাড়া অন্য কাউকে অনুমতি দেওয়া হয়নি। একই কারণে তার মরদেহ সেনাবাহিনীর ‘গান ক্যারেজে’র পরিবর্তে শবাধার-বাহী গাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। দিল্লির রাজাজি রোডের বাড়ি থেকে শুরু করে লোদি রোড মহাশ্মশান পর্যন্ত সবখানেই কভিড প্রোটোকল মেনে শেষকৃত্য করা হয়। পিপিই পরে অন্তেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করেন ছেলে অভিজিৎ মুখার্জি। পরিবারের অন্য সদস্যরাও পিপিই পরে যোগ দেন শেষকৃত্যে। এ ছাড়া শ্মশানে লোকসংখ্যা সীমিত রাখা হয়।
এর আগে যখন দিল্লির সেনা হাসপাতাল থেকে প্রণব মুখার্জির মরদেহ তার লোদি রোডের বাসভবনে আনা হয়। সেখানে রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারি ও বিরোধী সব দলের রাজনীতিকরা তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। তবে কভিডের কারণে মৃতদেহ বাড়ির একটি ঘরে রাখা হয়। সেখানে কাউকে যেতে দেওয়া হয়নি। একটি বেদি তৈরি করে তাতে প্রণবের ছবি রাখা হয়। সেই ছবিতেই ফুলের মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সবাই। ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কংগ্রেসের পক্ষে রাহুল গান্ধী দশ নম্বর রাজাজি মার্গের বাসভবনে যান। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রপতিকে শ্রদ্ধা জানান উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা, চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত, সস্ত্রীক প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরী, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালসহ বহু নেতা-মন্ত্রী ও সাধারণ মানুষ। তাঁর মৃত্যুতে সাত দিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এই সাত দিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে। তাঁর মৃত্যুতে আজ বুধবার বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক পালন করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com