শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:০৮ অপরাহ্ন

বাজিতপুরের ব্যবসায়ী সাচ্চু হত্যা মামলায় আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৪১ বার পঠিত

কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) থেকে সুবল চন্দ্র দাস।- হত্যা মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে হাজির করলে অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুনকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে বাজিতপুরের ওমর চান ওরফে সাচ্চু হত্যা মামলায় বুধবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কিশোরগঞ্জ পিবিআইয়ের পরিদর্শক মজিবুর রহমান জানান, বাজিতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনের নির্দেশে ও তার পরিকল্পনাতেই ব্যবসায়ী সাচ্চুকে হত্যা করা হয়। এর আগে গ্রেফতার করা দুই আসামি নান্টু ও আল আমীনের স্বীকারোক্তিতেই মামুনের নাম উঠে আসে বলে তিনি জানান। তিনি আরও জানান, ২০১৭ সালের ২৭ জুন রাতে খুন হন ব্যবসায়ী সাচ্চু। ঘটনার পরদিন এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করেন সাচ্চুর বড় ভাই জামাল মিয়া। মামলা তদন্ত ও গ্রেফতার করা আসামিদের স্বীকারোক্তিতে তিনি জানতে পারেন, সাচ্চুর ছোট ভাই লায়েস মিয়ার সাথে মামুনের ব্যবসায়িক লেনদেন নিয়ে বিরোধ ছিল। এর জের ধরেই দুই লক্ষ টাকার চুক্তিতে লায়েসকে খুন করার পরিকল্পনা করা হয়। পরিকল্পনা অনুযায়ী দুষ্কৃতিকারীরা ২০১৭ সালের ২৭ জুন রাতে বাজিতপুরের পশ্চিম বসস্ত পুরে লায়েসের বাসায় হানা দেয়। কিন্তু লায়েস ঐদিন বাসায় ছিলেন না। তার ছোট ভাই সাচ্চু মশারি টানিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন ঘরে। দুষ্কৃতিকারীরা লায়েস মনে করে মারপিট ও ছুরিকাঘাতে সাচ্চুকে হত্যা করে। পিবিআইয়ের পরিদর্শক মজিবুর রহমান মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে এ বছরের ২১ অক্টোবর প্রযুক্তির সহযোগিতায় সন্দিগ্ধ আসামি নান্টু মিয়াকে (২৮) গ্রেফতার করেন। জিজ্ঞাসাবাদে নান্টু মিয়াসহ তদন্তে প্রাপ্ত অপরাপর আসামিরা ভিকটিম সাচ্চুকে দুই লক্ষ টাকার চুক্তিতে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে মর্মে স্বীকার করে। পরে আসামি নান্টু মিয়া আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেন। এছাড়া গত ২৪ অক্টোবর সন্দেহভাজন আসামি আল আমিনকে (৩২) বাজিতপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় বলে তিনি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com