রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
জনগণের কাছে বিএনপি’র ক্ষমা প্রার্থনা করা উচিত-গোপাল এমপি দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের শ্রদ্ধা দিনাজপুর জেলা আ: লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২২ সফল করতে প্রস্তুতি সভা পার্বতীপুরে এড.মোস্তাফিজুর রহমান এম পি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন গাইবান্ধায় ৮৩ হাজার ৫৭০ জন পাবেন বিনামূল্যে বীজ নেচে-গেয়ে দর্শক মাতালো সাঁওতাল তরুণীরা সাফল্য সাহত্যি সংস্কৃতি পরিবার বাংলাদশে এর লেখক পাঠক মলিনমলো গাইবান্ধা সদরে আশ্রয়ণের ঘর পেয়েও থাকেন ভাড়া বাসায় রংপুরে লেখক পাঠক মিলন মেলা ২০২২ সাদুল্লাপুরে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা ১২ হাজার ৪০ হেক্টর

শিক্ষা টিভি চালু করুন

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৩ আগস্ট, ২০২০
  • ১৭৫ বার পঠিত

আমাদের প্রিয় জন্মভুমি বাংলাদেশ। বাংলাদেশ নিয়ে আমরা গর্ব করি। বাংলাদেশ নিয়ে আমরা স্বপ্ন দেখি।আমরা বিশ্বাস করি অপার সম্ভবনার দেশ বাংলাদেশ। আমরা আমাদের ক্ষমতা সম্পর্কে জানি,যে কোন সংকট, দুর্যোগ মোকাবেলার ক্ষমতা আমাদের আছে। আমরা এও বিশ্বাস করি আমাদের সরকার করোনা, বন্যা, আর্থিক সংকটসহ সকল পরিস্থিতির মোকাবেলা করে মাথা উঁচু করে দাড়াবে। তবে একটি বিষয় নিয়ে আমরা খানিকটা উদ্বগ্ন,তা হলো করোনাকালে সৃষ্ট শিক্ষা ক্ষেত্রে সংকট। গত মার্চ মাস থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। হাজার হাজার শিক্ষার্থী বিপাকে পড়েছে।এই সময় শিক্ষকরা ঘর থেকে বের হচ্ছে না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে মাকড়সার জাল,শ্যাওলার রাজত্ব চলছে। স্কুল মাঠে ঘাস বড় হয়ে গেছে। ছাত্র/ ছাত্রীরা লেখা পড়া শিকোয় তুলে রেখেছে। বিশেষ করে প্রাথমিক ও হাইস্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা লেখা পড়া ছেড়ে ইচ্ছে মত ঘুরে বেড়াচ্ছে। অনেকের ধারনা শিশুরা এই বছর অটো প্রমোশন পাবে। অনেক অভিভাবকও তেমনটাই ভাবছেন। এ ভাবে তো চলতে পারে না। শিশুদের আবার লেখা পড়ায় মনোযোগ দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।কেউ কেউ ভাবছেন,অনলাইনে পাঠদান চলালে ভালো হবে।কেউ ভাবছেন টিভির কথা। হ্যা আমরা মনে করি সময়ের প্রয়োজনে শিক্ষা টিভি চালু করতে পারে সরকার।শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতির স্বার্থে শিক্ষা টিভি চালু করা হলে,ছাত্র /ছাত্রী অভিবাবক,দেশ লাভবান হবে। সরকার বিটিভিকে এই দায়িত্ব দিতে পারেন। কেবল টিভির মাধ্যমেও শিক্ষা প্রসারে কাজ করা যায়। প্রাইমারী থেকে হাইস্কুল এর ছাত্র ছাত্রীদের জন্য নভেম্বর পর্যন্ত সকল বিষয়য়ে ক্লাস নেয়া হলে আবার শিক্ষার্থীদের পাঠে মন বসবে। সারা দেশে একই সিলেবাসের অধীনে পাঠদান করা যেতে পারে। রেডিও নয়, মোবাইল ফোন নয়, টেলিভিশন কেই ব্যবহার করতে হবে। কারণ গ্রামে বসবাস করে অধিকাংশ ছেলে মেয়ে। প্রায় সকল বাড়ীতেই এখন টেলিভিশন আছে। তাই এই মাধ্যমে ক্লাস নেয়ার কথা বলছি আমরা। অভিভাবকরাও এতে উপকিৃত হবেন। সরকার এই এইপথে হাটলে প্রাইভেট পড়ানোর ঝামেলা থাকবে না। তবে বলি টিভির মাধ্যমে শিক্ষাদানের সাথে শিক্ষামুলক,বিনোদনের ব্যবস্থাও করা যেতে পারে। আমরা মনে করি শিক্ষাদানের পথটা আনন্দদায়ক হওয়া দরকার।যে ভাবেই হোক ডিসেম্বরে একটা পরীক্ষা অবশ্যই নিতে হবে। নইলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে ছাত্র/ছাত্রীরা ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com