রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১১:০৯ অপরাহ্ন

সাপাহারে পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের অফিস ভাংচুরের অভিযোগ

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১
  • ১৫১ বার পঠিত

সাপাহর (নওগাঁ) প্রতিনিধি।-  নওগাঁর সাপাহারে শ্রমিক ইউনিয়নের অফিস ভাংচুর, চুরি ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে বুধবার রাতে মামলা হয়েছে। নওগাঁ ট্রাক ট্যাংকলরি ও কাভার্ডভ্যান পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ২৬৫০ সাপাহার শ্রমকল্যাণ উপকমিটির অফিস ভাংচুর, চুরি ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে অপর সংগঠন ২৩৮ ও ২৬৫৮ সাপাহার লোড পয়েন্ট শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্যদের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

থানায় লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নওগাঁ জেলা (সাপাহার লোড পয়েন্ট) ট্রাক ট্যাংকলড়ী ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন ২৩৮ ও ২৬৫৮ সংগঠনের সাথে নওগাঁ জেলা ট্রাক ট্যাংকলড়ী ও কাভার্ডভ্যান পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ২৬৫০ সাপাহার শ্রমকল্যান উপকমিটির সাথে বিভিন্ন বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। সাপাহার থানা এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে চালানের টাকা কাটার বিষয়টি নিয়ে বিরোধ মিমাংসার জন্য বুধবার বিকালে (৯জুন) সাপাহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাজান আলীর চেম্বারে বৈঠক হয়। এক পর্যায়ে উপজেলা চেয়ারম্যান সিদ্ধান্ত নেয় উভয় সংগঠন মিলেমিশে চালান বিক্রি করবে। কিন্তু বিবাদী ২৩৮ ও ২৬৫৮ সংগঠনের সদস্যরা উপজেলা পরিষদের সিদ্ধান্ত অমান্য করে বের হয়ে যায়। এরপর তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ২৬৫০ সংগঠনের ট্যাংরাকুড়ি অফিসে এসে তান্ডব চালায়। এ সময় তাদের কাছে থাকা বাঁশের লাঠি, লোহার রড, রামদা, ধারালো হাসুয়া দিয়ে স্প্রে মেশিন, খাট, টেবিল, চেয়ার ভাংচুর করে নগদ ৮৫ হাজার টাকা ও করোনা ভাইরাসে ব্যবহৃত হ্যান্ডস্যানিটাইজার, মাক্স ও ডেটলসহ গুরুত্বপূর্ন জিনিসপত্র নিয়ে যায়। এতেই তারা ক্ষান্ত না হয়ে উপজেলার সদরে এসে গোডাউনপাড়া মোড়ে নওগাঁ জেলা ট্রাক ট্যাংকলড়ী ও কাভার্ডভ্যান পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাপাহার উপজেলার শ্রমকল্যান উপ-কমিটির সদস্য আবু হোসেনের বাড়িতে ঢুকে বাড়ির জিনিসপত্র ভাংচুর করে। এ সময় তার স্ত্রীর সাথে শ্লীলতাহানীর ঘটনা ঘটায় এবং স্বর্নের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় নওগাঁ জেলা ট্রাক ট্যাংকলড়ী ও কাভার্ডভ্যান পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ২৬৫০ সাপাহার শ্রমকল্যান উপকমিটির সাধারন সম্পাদক আবুল হোসেন বাদী হয়ে অপর ২৩৮ ও ২৬৫৮ সংগঠনের সদস্য মোঃ আব্দুর রহমান, মোঃ মঈনুদ্দীন, কালা বাবুল, শামছুল হোসেন, গোলাপ হোসেন, মুক্তরুল, ইউনুস, জিয়া, তপু, রাসেল, সোহাগ, রুবেল, বাইদুর, সাইদুর, শামীম, সাখোয়াত, মোকছেদুলসহ ২৮জনের নাম উল্লেখ করে বুধবার রাতে (৯জুন) থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে সাপাহার থানার ওসি তারেকুর রহমান বলেন, থানায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com