1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
বৃহস্পতিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:০০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পার্বতীপুরে গৃহকর্মীকে নির্যাতন সাপাহারে উৎপাদিত বল সুন্দরী বরই কৃষিতে নতুন চমক নৌকা উন্নয়নের প্রতীক -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি নবাবগঞ্জে বঙ্গবন্ধু গ্যালারীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ফুলবাড়ীতে  বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ও সুধি সমাবেশ দিনাজপুরে ৯নং ওয়ার্ডে  উটপাখি মার্কার প্রার্থী দুলালের ব্যাপক প্রচারণা দিনাজপুরে পল্লীশ্রীর অর্থনৈতিক ও জীবিকার সুযোগ বৃদ্ধি শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত রওশন আরা রাণীর কুলখানী অনুষ্ঠিত পার্বতীপুর রেলওয়ে জংশনে মোবাইল চুরির চেষ্টা এক যুবকের ৩ মাসের কারাদন্ড পার্বতীপুরে লিজকৃত সরকারী জলাশয়ের মাটি কেটে বিক্রির অভিযোগ

সোনার হরিণের আসায় বিদেশে কাজের নামে অন্ধের মতো ছুটবেন না -প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৯ বার পঠিত

বজ্রকথা ডেক্স।- ৬ জানুয়ারী ২০২১ সকালে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০২০’ এর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিদেশে কাজের নামে সোনার হরিণ ধরার জন্য অন্ধের মতো ছুটবেন না।’ প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে আরো বলেছেন, ‘রিক্রুটিং এজেন্সি এবং প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে বিদেশগামীদের কর্মসংস্থান, নিরাপত্তা আছে কি না এ বিষয় নিশ্চিতে আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। কারণ দায় তাদের ওপরও বর্তায়। আসলে মানুষ নানা কথা চিন্তা করে, ভাবে বিদেশ গেলে হয়তো অনেক অর্থ উপার্জন করা যাবে। সেজন্য অনেকে দালালের খপ্পরে পড়ে অন্ধকার পথে পা বাড়ায়। সেজন্য আমি বলব, আপনারা এসব কাজ করবেন না, দালালের প্ররোচনায় পা বাড়াবেন না।’ বিদেশগামীদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, ‘সারা দেশে ডিজিটাল সেন্টার করে দিয়েছি। সেখানে আপনারা বিদেশ যেতে নিবন্ধন করতে পারবেন। আর এই নিবন্ধনের মাধ্যমে যেখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ হয় সেখানেই পাঠানো হয়। কাজেই সেক্ষেত্রে ধৈর্য ধরতে হবে।
প্রবাসী কল্যাণ এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রী ইমরান আহমদ। মন্ত্রণালয়ের সচিব মুনীরুছ সালেহীন স্বাগত বক্তৃতা রাখেন। প্রবাসী কল্যাণ এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং রিক্রুটিং এজেন্টদের সংগঠন ‘বায়রা’র সাবেক সভাপতি বেনজীর আহমেদ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে মন্ত্রী ইমরান আহমদ প্রবাসী বাংলাদেশিদের মেধাবী সন্তানদের মধ্যে শিক্ষাবৃত্তির চেক এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে সিআইপি ক্রেস্ট এবং সনদ বিতরণ করেন। বৈধ চ্যানেলে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স প্রদানকারী হিসেবে মাহতাবুর রহমান এবং জেসমিন আক্তারকে পুরস্কৃত করা হয় এবং অনিবাসী বাংলাদেশি হিসেবে দেশে সরাসরি বিনিয়োগের জন্য কল্লোল আহমেদ সিআইপি ক্রেস্ট লাভ করেন। ২০০৯ থেকে অদ্যাবধি মোট ১৫৫ জনকে সিআইপি মর্যাদা দেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘রিক্রুটিং এজেন্সি এবং প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে বিদেশগামীদের কর্মসংস্থান, নিরাপত্তা আছে কি না এ বিষয় নিশ্চিতে আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। কারণ দায় তাদের ওপরও বর্তায়। আসলে মানুষ নানা কথা চিন্তা করে, ভাবে বিদেশ গেলে হয়তো অনেক অর্থ উপার্জন করা যাবে। সেজন্য অনেকে দালালের খপ্পরে পড়ে অন্ধকার পথে পা বাড়ায়। সেজন্য আমি বলব, আপনারা এসব কাজ করবেন না, দালালের প্ররোচনায় পা বাড়াবেন না।’ বিদেশগামীদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, ‘সারা দেশে ডিজিটাল সেন্টার করে দিয়েছি। সেখানে আপনারা বিদেশ যেতে নিবন্ধন করতে পারবেন। আর এই নিবন্ধনের মাধ্যমে যেখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ হয় সেখানেই পাঠানো হয়। কাজেই সেক্ষেত্রে ধৈর্য ধরতে হবে। কিন্তু আপনারা কারও প্ররোচনায় বিদেশ গিয়ে যদি বিপদে পড়েন তাহলে নিজের জন্য, পরিবারের জন্য খুবই কষ্টকর। লিবিয়ার ঘটনার মতো আর যেন না হয়। এরকম পরিস্থিতির শিকার হবেন না। তিনি বলেন, এখন আমাদের দেশে কাজের অভাব নেই, খাবারের অভাব নেই। তাই সোনার হরিণ ধরার জন্য অন্যের প্ররোচনায় ছুটবেন না। নিবন্ধন করে নিরাপদে যাবেন সেটাই আমরা চাইব।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রবাসীদের কল্যাণে আমাদের সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। করোনাভাইরাসের কারণে অনেক জায়গায় অর্থনীতি স্থবির হয়ে পড়েছে। কাজেই অনেকে কাজ হারাচ্ছেন। ব্যাংকের মাধ্যমে আমরা ঋণ দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি। কাজেই আপনারা হতাশ হবেন না।’ তিনি বলেন, ‘বিদেশে গমনেচ্ছুরা নিবন্ধন করে নিয়মমাফিক যান, সেটাই আমরা চাই। কেননা, প্রবাসী কর্মীদের সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিত করার জন্য আমাদের সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।’ তিনি বলেন, ‘প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে এ বিষয়ে আরও নজরদারি করতে হবে এবং বিদেশে কর্মী পাঠানোয় সম্পৃক্তদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। প্রবাসীদের কর্মসংস্থান ঠিকমতো হচ্ছে কি না, কর্মস্থলের নিরাপত্তা, বিশেষ করে নারী কর্মীদের নিরাপত্তার বিষয়ে সবাইকে লক্ষ্য রাখতে হবে।’
শেখ হাসিনা বলেন, ‘অনেকেই এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ না নিয়ে কোনোভাবে একটি সার্টিফিকেট নিয়ে নেন এবং বিদেশে গিয়ে সমস্যায় পড়েন। কাজেই এই কাজটি না করে আন্তরিকতার সঙ্গে প্রশিক্ষণ নিয়ে গেলে কেউ আর বিদেশ গিয়ে হেনস্তার শিকার হবেন না।’ তিনি বলেন, বাংলাদেশের কর্মীরা যেসব দেশে কাজ নিয়ে যান সেখানকার সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান এবং নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে আলোচনায় তিনি এবং তাঁর সরকার সব সময় সে দেশের উন্নয়নে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ভূমিকা তুলে ধরেন। সরকার প্রধান বলেন, ‘আমার দেশের মানুষ আমার কাছে অনেক সম্মানের এবং বাইরে গিয়ে যেন তারা অসম্মানে না পড়েন, সেদিকে লক্ষ্য রেখেই আমরা কাজ করছি।’ তিনি বলেন, সে জন্যই চলমান মুজিববর্ষে এবারের আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের জন্য আমাদের প্রতিপাদ্য হচ্ছে- ‘মুজিববর্ষের আহবান দক্ষ হয়ে বিদেশ যান।’ তিনি বলেন, ‘যখন থেকে সরকারে এসেছি তখন থেকেই প্রচেষ্টা চালিয়েছি যে আমাদের দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে আমরা আত্মমর্যাদাশীল হব, আত্মনির্ভরশীল হব। যে কারণে দেশের বাজেটের প্রায় ৯৭/৯৮ ভাগই নিজেদের অর্থায়নে বাস্তবায়ন করতে পারছি।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চল তাঁর সরকার গড়ে তুলছে এবং সেখানে বিদেশি বিনিয়োগ আসছে। সেখানেও দক্ষ কর্মীর প্রয়োজন পড়বে। তাই দেশেও ভবিষ্যতে কাজের অভাব হবে না। তিনি বলেন, বৈশ্বিক মন্দা ও কভিড পরিস্থিতির মধ্যেও ২০২০ সালে রেকর্ড ২১ দশমিক ৭৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স পাওয়া গেছে এবং সরকার ২০১৮-১৯ অর্থবছর থেকে বৈধ চ্যানেলে প্রেরিত রেমিট্যান্সের ওপর ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা চালু করেছে। তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় বর্তমানে করোনাভাইরাসে মৃত্যুবরণকারী নিবন্ধিত ও অনিবন্ধিত নির্বিশেষে সব প্রবাসী কর্মীর পরিবারকে পুনর্বাসনের জন্য ৩ লাখ টাকা প্রদান করা হচ্ছে। করোনাভাইরাসে যারা ক্ষতিগ্রস্ত অবশ্যই তাদেরকে আমাদের দেখতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘অনেকে আজকে করোনার কারণে কাজ হারাচ্ছেন। তারপরও আমি বলব যারা দেশে ফিরে আসছেন তাদের জন্য আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com