মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৫:০৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

১০ দিন পিঁয়াজ খাওয়া বন্ধ রাখুন দাম কমে যাবে : টিপু মুনশি

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২২৭ বার পঠিত

বজ্রকথা ডেক্স।- বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ভোক্তাদের সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেছেন , মাত্র ১০ দিন পিঁয়াজ খাওয়া বন্ধ রাখুন, দাম কমে যাবে। ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্যমন্ত্রী এই বাণী শুনিয়েছেন। সংবাদ সন্মেলনে মন্ত্রী নিজের অবস্থা সম্পর্কে জানান, ভারত থেকে পিঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ার পর গত (মঙ্গলবার) রাত থেকে তাঁর ঘুম হারাম হয়ে গেছে। হঠাৎ পিঁয়াজের দাম বৃদ্ধির পেছনে তিনি অসাধু ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি ভোক্তার আচরণকেও দায়ী করেছেন। তিনি বলেছেন ,ভারত রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিয়েছেন। এর ওপর ছিল ভোক্তাদের প্যানিক; যে ২ কেজি কিনত সে ১০ কেজি কিনেছে, তাই হঠাৎ বাজারে চাপ পড়েছে।
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের একটি বক্তৃতার উদ্ধৃতি দিয়ে টিপু মুনশি বলেন, ব্যবসায়ীদের মধ্যে সিন্ডিকেট থাকলেও জনগণের মধ্যে কোনো সিন্ডিকেট নেই। জনগণ ধৈর্য ধারণ করলে, এক মাসের মধ্যে পিঁয়াজের মূল্য পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় চলে আসবে বলে মন্ত্রী আশ্বস্ত করেন। এক মাস পর কত দামে পিঁয়াজ দেওয়া সম্ভব হবে- এমন প্রশ্নে উত্তরে মন্ত্রী বলেন, যদি আপনারা মানুষকে বোঝাতে পারেন ১০ দিন পিঁয়াজ কিনবেন না, আমি কিন্তু কমে খাওয়াতে পারব। যদি বলেন ২ কেজির জায়গায় ১০ কেজি তাহলে আমি কোনো গ্যারান্টি দিতে পারব না। আমি বলছি আমাদের ঘাটতি আছে, এক মাসে আমরা বিভিন্ন জায়গা থেকে কালেক্ট করব, এই একটা মাস একটু সাশ্রয়ী হতে হবে।
মন্ত্রী জানান, আগামী জানুয়ারি পর্যন্ত ১০ লাখ মেট্রিক টন পিঁয়াজের ঘাটতি আছে। অভ্যন্তরীণ মজুদ আছে ৬ লাখ মেট্রিক টন। আরও ৪ লাখ মেট্রিক টন আনতে হবে। তুরস্ক, মিয়ানমার, মিসরসহ কয়েকটি দেশ থেকে এ পিঁয়াজ আমদানির উদ্যোগ নেওয়ার কথা জানান তিনি। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে এদিন উপস্থিত ছিলেন, বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন, অতিরিক্ত সচিব শরিফা খান, অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) মো. ওবায়দুল আজম, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা, টিসিবি চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আরিফুল হাসান প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com