1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
আ.লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ উপ-কমিটির সদস্য হলেন পীরগঞ্জের মাসুম গাইবান্ধা শহরের পুরাতন ঘাঘট নদীর ধারের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ গাইবান্ধায় কলেজ ছাত্রী সুলতানা হত্যা: কে জড়িত প্রশ্ন এলাকাবাসীর পার্বতীপুরে মা গলা টিপে হত্যা করল শিশু কন্যাকে পার্বতীপুরের হরিরামপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা জনমনে ক্ষোভ  সাংবাদিকতায় অনবদ্য অবদান রাখায় দাবানলের  প্রতিষ্ঠাতা বাটুলকে মরণোত্তর সম্মাননা প্রদান ফুলবাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন মোস্তাক আহমেদ এর মৃত্যু নিয়ে বিভিন্ন মহল নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া লেখক মোস্তাক আহমেদের দাফন সম্পন্ন: ছাত্রদের নতুন কর্মসূচী জাতিসংঘ মহাসচিবকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ

৪ মাস ধরে স্বেচ্ছায় করোনা মহামারীতে সচেতন করছেন আবদুল কাদির

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০
  • ১৫৭ বার পঠিত
Exif_JPEG_420

সুবল চন্দ্র দাস, কটিয়াদী থেকে ।- গত মার্চ ২০২০ মাস থেকে বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস দেখা দেওয়ায় কটিয়াদী উপজেলার পাড়া মহল্লার মানুষকে নিজ উদ্যোগে সচেতন করছেন কটিয়াদী সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের নৈশ প্রহরী আঃ কাদির। তিনি সকাল বিকাল নিজের টাকা হ্যান্ড মাইক কিনে প্রচার দিয়ে যাচ্ছেন। আর তার এই গনসচেতনাকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন এলাকার সকল শ্রেনী পেশার মানুষ। আঃ কাদির বয়স ৫০ উর্ধ্ব। তিনি কটিয়াদী উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের একজন নৈশ প্রহরী। অত্যান্ত স্বল্প বেতনে চাকুরী করে তাহার পরিবার পরিজন নিয়ে সংসার পরিচালনা করা খুবই কষ্টসাধ্য। তারপরও দেশের এবং দেশের মানুষের প্রতি অনেক মায়া রেখে নিজে খেয়ে না খেয়ে সকাল সন্ধ্যা মানুষকে তার নিজ মাইকে প্রচারের মাধ্যমে ঘরে থাকা, মাক্স ব্যবহার করা, দুরত্ব বজায় রাখা, সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, হ্যান্ড সেনিটাইজার ব্যবহার ইত্যাদি বিষয়ে সকাল বিকাল মানুষকে এখনও সজেতন করে তুলছেন আবদুল কাদির। তিনি ভোর ৬ থেকে সকাল ০৯টা পর্যন্ত এবং বিকাল ৪ টা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মাথায় চুপি, মুখেমাক্স, ও তার নিজ টাকায় কিনা পিপি পড়ে কটিয়াদী উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে পাড়া মহল্লায় নারী পুরুষ যুবক যুবতি ছাত্র ছাত্রীদের উপদেশ মুলক এই প্রচারাভিযান অব্যাহত রাখার কারনে কটিয়াদীতে করোনার মত মহামারী তেমন একটা রুপ ধারন করতে পারে নি। আঃ কাদির বলেন, আমি সরকারী দায়িত্ব পালনের পর যতটুকু সময় পাই সেই সময় টুকু বাসায় না কাটিয়ে মানুষকে সচেতন করে থাকি। এ দেশের মানুষ সুস্থ্য থাকলে সবাই সুস্থ্য থাকবে। দরকার একটু সচেতনতা। মানুষ সতেচন হলেই করোনা বিদায় নিবে। মানুষ ভয়ে না পেয়ে সচেতন হয়ে চলার ঘোষনাও দেন আঃ কাদির। কটিয়াদী বাসষ্ট্যান্ড, কটিয়াদী পশ্চিম ও পুর্ব পাড়া, ঝাকালিয়া বাজার, জালালপুর বেতাল, আচমিতা বাজার সহ বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন স্থাপনায় তিনি এখনও প্রচার অব্যাহত রেখেছেন। তার সচেতনা মানুষকে আরো আকৃষ্ট করেছে। আঃ কাদির বলেন, আমি পায়ে হেটে যতটুকু পারি মানুষকে সচেতন করে যাচ্ছি। আমাকে সরকারী ভাবে কোন কিছু দেয়া হয়নি। সরকারী ভাবে কোন কিছু পেলে আমি আরো দ্রæত মানুষকে ঘরে থাকার বিষয়ে সচেতন করতে পারতাম। যতদিন এই মহামারী থাকবেততদিন তিনি তার প্রচার চালিয়ে যাবেন বলে জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com