বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন

এইচআইভি প্রতিরোধের লক্ষ্যে রংপুরে এ্যাডভোকেসী সভা

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৩৬ বার পঠিত

হারুন উর রশিদ।- এইচআইভি এইডস প্রতিরোধের লক্ষ্যে রংপুরে এক এ্যাডভোকেসী সভা গতকাল রোববার সকালে অনুষ্ঠিত হয়েছে। লাইট হাউজের আয়োজনে রংপুর সদর হাসপাতাল (পুরাতন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের) কনফারেন্স রুমে এ এ্যাডভোকেসী সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন মহানগর কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ ফখরুল আনাম বেঞ্জু’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, রংপুরের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. রুহুল আমিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রংপুর জেলা পরিষদের সদস্য ও নারী নেত্রী পারভীন আক্তার। সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজের সহযোগী অধ্যাপক আজহারুল ইসলাম দুলালের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজের সহকারি অধ্যাপক অনিমা বর্মা, লাইট হাউজ রংপুর অফিসের সাব ডিআইসি ইনচার্জ সাহাবুল ইসলাম, মেরীস্টপ কিøনিকের কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম তৌহিদ, জনস্বাস্থ্য অধিকার আন্দোলনের চেয়ারম্যান বেলাল হোসেন, রংপুর জেলা মডেল মসজিদের খতিব মাও: জাহিদুল ইসলাম প্রমুখ। এ্যাডভোকেসী সভায়, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের চিকিৎসক ও কর্মকর্তাবৃন্দ, রংপুরের শিক্ষক, আইনজীবি, ইমাম-খতিব ও পুরোহিত, সাংবাদিক ও হিজরা সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিসহ লাইট হাউজের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সভায়, বাংলাদেশে এইচআইভি রোগীদের বর্তমান অবস্থান, হিজড়া এবং এমএসএম জনগোষ্ঠী কতটা এইচআইভি’র ঝুঁকির মুখে আছে, প্রতিরোধ কিভাবে করা যাবে এবং তাদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি ও স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক আলোচনা হয়। বক্তারা, লাইট হাউজের কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এইচআইভি এইডস প্রতিরোধে সংস্থাটিকে আরও জোরদার কার্যক্রম চালাতে হবে। সভা-সমাবেশ, শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে আলোচনা করে সকলের মাঝে তা ছড়িয়ে দিতে হবে। তাহলে প্রকৃত সুফল আসবে।
জানা গেছে, দি গেøাবাল ফান্ড প্রজেক্টের ব্যবস্থাপনায় ‘প্রায়োরাটাইজড এইচআইভি প্রিভেনশন অ্যান্ড ট্রিটমেন্ট সার্ভিসেস ফর কী-পপুলেশনস ইন বাংলাদেশ’ নামে একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। জাতীয় এইডস ও এসটিডি কন্ট্রোল, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সার্বিক তত্ত¡াবধানে প্রকল্পটির বাস্তবায়নকারী সংস্থা হিসেবে কাজ করছে লাইট হাউজ। বাংলাদেশে এইচআইভি’র নতুন সংক্রমণ, প্রকোপ ও এইচআইভি সম্পর্কিত রোগ এবং মৃত্যু কমানো এবং কী পপুলেশনকে লক্ষ্য করে এইচআইভি টার্গেটেড ইন্টারভেনশনের আরও উন্নয়ন সাধন ও সম্প্রসারিত করতেই এই প্রকল্পের কার্যক্রম। রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল ও ঢাকা বিভাগের ১৯টি জেলায় কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com