1. admin@bwazarakatha.com : bwazarakatha com : bwazarakatha com
বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ১০:২৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
রংপুরে সাড়ে তিন কেজি গাঁজাসহ ইউপি সদস্য আটক রংপুরে বোনের বিয়ে ভাঙার প্রতিবাদ করায় বখাটের হামলায় ভাইয়ের মৃত্যু গ্রেফতার-১ মিঠাপুকুরে অসহায় দুস্থদের পাশে জেলা আ’লীগ নেতা মওলা বিরামপুরে কর্মহীনদের মাঝে নগদ অর্থ প্রদান  দিনাজপুর শহরের ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের উদ্যোগে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন নিবন্ধন কার্যক্রম কাহারোলে বাংলাদেশ প্রেস ক্লাব কাহারোল উপজেলা শাখার আহবায়ক কমিটি গঠন বিরামপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কর্মহীন ও অসহায়দের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ  ঘোড়াঘাটে বিদ্যালয় থেকে জাতীয় শোক দিবসের ব্যানার গায়েব পীরগঞ্জে করোনা প্রতিরোধ বুথ উদ্বোধন গোবিন্দগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু

করোনায় মারা গেছেন রাষ্ট্রপতির ভাই মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই, রবিবারে জানাজা-দাফন : উপস্থিত থাকবেন রাষ্ট্রপতি

  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৮ জুলাই, ২০২০
  • ৬৭ বার পঠিত

সুবল চন্দ্র দাস/ রনবীর সিংহ কিশোরগঞ্জ থেকে।- রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের ছোট ভাই ও সহকারী একান্ত সচিব, মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যাপক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই এর নামাজে জানাজা ১৯ জুলাই রবিবার বিকাল ৩টায় নিজ হাতে গড়ে তোলা প্রতিষ্ঠান কিশোরগঞ্জের মিঠামইনের মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক সরকারি কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। পরে মিঠামইন উপজেলা সদরের কামালপুর গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে বাবা-মায়ের কবরের পাশে তাঁকে সমাহিত করা হবে। স্নেহের ছোট ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই এঁর নামাজে জানাজা এবং দাফনে উপস্থিত থাকবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের বড় ছেলে ও কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক আরো জানিয়েছেন , তাঁর চাচা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। এর আগে করোনার উপসর্গ দেখা দিলে গত ২ জুলাই তাঁর নমুনা পরীক্ষা করা হয় এবং কোভিড-১৯ পজেটিভ রিপোর্ট আসে। পরে গত ৫ জুলাই তাঁকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। গত ১২ জুলাই থেকে তাঁকে ভেনটিলেশনে রাখা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে মারা যান তিনি। । মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে, ২ মেয়ে ও আত্মীয় স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর তিন সন্তানের মধ্যে এক মেয়ে চিকিৎসক, এক মেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ও একমাত্র ছেলে প্রকৌশলী। বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই কিশোরগঞ্জের মিঠামইন উপজেলার কামালপুর গ্রামে ১৯৫৩ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। বাবা মরহুম হাজী তায়েব উদ্দিন এর ৫ ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে আবদুল হাই ছিলেন পঞ্চম। পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে তিনি ছিলেন চতুর্থ এবং রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ দ্বিতীয়। সবার বড় আব্দুল গনি ও তৃতীয় আব্দুর রাজ্জাক মারা গেছেন। রাষ্ট্রপতির একমাত্র ছোট বোন আছিয়া আলম বর্তমানে মিঠামইন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই এঁর বড়। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ১৯৯৬ সালে জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার নির্বাচিত হলে আবদুল হাই তাঁর সহকারী একান্ত সচিব হিসেবে যোগ দেন। আবদুল হামিদ জাতীয় সংসদের স্পিকার হলে তাঁকে আবারও সহকারী একান্ত সচিব করা হয়। পরে মো. আবদুল হামিদ রাষ্ট্রপতি হলে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাইকে জাতীয় সংসদের উপ-পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। সেখান থেকে অবসরে যাওয়ার পর বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই রাষ্ট্রপতির সহকারী একান্ত সচিব হিসেবে নিয়োগ পান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2020 Bwazarakatha.Com
Design & Development By Hostitbd.Com