বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০১:২১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
রংপুর বিভাগের নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান- ভাইস চেয়ারম্যানের শপথগ্রহণ রংপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন প্রার্থী আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা মর্যাদার লড়াই জাতীয় পার্টির বিরামপুর পুলিশ বক্স ও বিট পুলিশিং কার্যালয়ের উদ্বোধন নদীর ভাঙন প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি রাস্তা পাকাকরণ কাজে ব্যাপক অনিয়ম  দেখার কেউ নেই “স্বাধীনতা সুবর্ণ জয়ন্তী পুরস্কার ২০২৩” পেল প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট রংপুরে যুবদল নেতা নয়নের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত রংপুর নগরীতে  বাড়িতে হামলা সরকারি জমি থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ  বিরামপুরে প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহে মা দিবস অনুষ্ঠিত

টিউশন ফির বাইরে আর কোন টাকা নেয়া যাবে না

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৮৭ বার পঠিত

বজ্রকথা ডেক্স।- গত ১৮ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বেসরকারি স্কুল-কলেজগুলো শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি নিতে পারবে। তবে এর বাইরে টিফিন, পুনঃভর্তি, গ্রন্থাগার, বিজ্ঞানাগার, ম্যাগাজিন ও উন্নয়ন বাবদ এবং অ্যাসাইনমেন্ট সংক্রান্ত কোনো ফি নিতে পারবে না।
মাউশি মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে করোনা সংক্রমণের কারণে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ আছে। এর মধ্যে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি নিয়ে কিছু কিছু প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অভিভাবকদের মতদ্বৈততা পরিলক্ষিত হচ্ছে। অভিভাবকরা বলছেন, স্কুল বন্ধ ছিল আর করোনায় তারা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। অন্যদিকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বলছে, বন্ধ থাকলেও শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতনসহ নানা খাতে অর্থ ব্যয় হচ্ছে।বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আমাদের যেমন অভিভাবকদের অসুবিধার কথা ভাবতে হবে, অন্যদিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো যেন বন্ধ বা অকার্যকর হয়ে না যায়, বা বেতন না পেয়ে শিক্ষক-কর্মচারীদের জীবন যেন সংকটে পতিত না হয়, সেটাও খেয়াল রাখতে হবে। বিষয়গুলো বিবেচনা করে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের আওতাধীন এমপিওভুক্ত ও এমপিওবিহীন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি নিতে পারবে। কিন্তু অ্যাসাইনমেন্ট, টিফিন, পুনঃভর্তি, গ্রন্থাগার, বিজ্ঞানাগার, ম্যাগাজিন ও উন্নয়ন বাবদ কোনো ফি নিতে পারবে না। নিয়ে থাকলে তা ফেরত দেবে, অথবা তা টিউশন ফির সঙ্গে সমন্বয় করবে।
আরও বলা হয়, যদি কোনো অভিভাবক চরম আর্থিক সংকটে থাকেন, তবে ওই শিক্ষার্থীর টিউশন ফি’র বিষয়টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ বিশেষ বিবেচনায় নেবেন। কোনো শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন যেন ব্যাহত না হয়, সে বিষয়ে সবাইকে যত্নশীল হতে বলা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ২০২১ সালের শুরুতে যদি কভিড-১৯ পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয়,তাহলে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিফিন, পুনঃভর্তি, গ্রন্থাগার, বিজ্ঞানাগার, ম্যাগাজিন, উন্নয়ন ফি নিতে পারবে না। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আগের মতো সব ধরনের যৌক্তিক ফি নেওয়া যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com