বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৩:৫০ অপরাহ্ন

নিকলীর হাওরে পর্যটকের মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা: গ্রেপ্তার ৩

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২০
  • ৫৯ বার পঠিত

কটিয়াদী(কিশোরগঞ্জ) থেকে সুবল চন্দ্র দাস।- কিশোরগঞ্জের নিকলীতে হাওর ভ্রমণে এসে ইফাত ভূইয়া (২৪) নামে এক পর্যটকের মৃত্যুর ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। গত ১৩ অক্টোবর নিহত ইফাত ভূইয়ার পিতা হানিফ ভূইয়া বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এ হত্যা মামলায় মোট ৮ জনকে আসামি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে সাব্বির হোসেন (২৩), উবায়দুল হক আদিব (২২) ও গোলাম মঈন উদ্দিন রাফি (২১) নামে তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত ২৮ আগস্ট হাওর ভ্রমণে এসে বিকালে ইফাত ভূইয়া হাওরের পানিতে নিখোঁজ হন। পরদিন ২৯ আগস্ট সকালে তার লাশ ভেসে ওঠলে উদ্ধার করা হয়। নিহত পর্যটক ইফাত ভূইয়া নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার কাদিরপুর গ্রামের মো. হানিফ ভূইয়ার ছেলে। তিনি ঢাকায় ব্যবসা করতেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ২৮ আগস্ট ঢাকা থেকে মোটর সাইকেলযোগে হাওর ভ্রমণের জন্য ৯ বন্ধু নিকলীতে আসেন। তাদের চারটি মোটর সাইকেল বেড়িবাঁধে রেখে তারা হাওর ভ্রমণের জন্য নৌকায় চড়েন। এক পর্যায়ে তারা পানিতে সাঁতার কাটতে নামেন। সাঁতার ও ভ্রমণ শেষে অন্যরা নিকলীর মোহরকোনা এলাকার বেড়িবাঁধে জড়ো হলেও তখন ইফাত নিখোঁজ থাকেন। পরদিন ২৯ আগস্ট সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে উপজেলার চন্তিঘাট এলাকার হাওরে তার লাশ ভেসে ওঠলে উদ্ধারের পর পুলিশ কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিকলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রফিকুল ইসলাম জানান, মামলায় নিহত ইফাত ভূইয়ার পিতা হানিফ ভূইয়া তার ছেলেকে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। গত ১৩ অক্টোবর মামলা দায়েরের পর ১৫ অক্টোবর রাতে অভিযান চালিয়ে ৮ আসামির মধ্যে সাব্বির হোসেন, উবায়দুল হক আদিব ও গোলাম মঈন উদ্দিন রাফি নামে তিন আসামিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তাদের মধ্যে সাব্বির হোসেন ঢাকার পুরাতন বান্দুর পাড়ার নওয়াবগঞ্জ এলাকার মৃত আনসার আলীর ছেলে, উবায়দুল হক আদিব মালিবাগ চৌধুরীপাড়ার আজিজুল হকের ছেলে ও গোলাম মঈন উদ্দিন রাফি ঢাকা দক্ষিণখানের গোলাম মঞ্জুরের ছেলে। গ্রেপ্তার হওয়া তিন আসামির প্রত্যেককে পাঁচ দিন করে রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে শুক্রবার ১৬ অক্টোবর বিকেলে কিশোরগঞ্জের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com