সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন

পীরগঞ্জে ভূমিহীন ও আদিবাসী সমাবেশ অনুষ্ঠিত

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১
  • ২০৪ বার পঠিত

বজ্রকথা প্রতিবেদক।- বড় বিপদে আছে রংপুর জেলায় পীরগঞ্জের সাওতাল সম্প্রদায়।অ উঠেছে দাদা-পরদাদাদের ভিটায় বসবাস করে আসলেও বন বিভাগ আদিবাসীন্দাদের বসত ভিটা থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা করছে। শুধু তাই নয়, একের পর এক বানোয়াট গাছ কাটার মামলা দিয়ে তাদেরকে নাজেহাল করা হচ্ছে।

৫ জুলাই /২১ খ্রি: সোমবার বেলা ১১ঘটিকার সময় পীরগঞ্জের বড় আলমপুর ইউনিয়নে ভুমিহীন কল্যাণ সমিতি আয়োজিত আদিবাসী ও ভুমিহীন সমাবেশ বক্তরা এ অভিযোগ করেন। রমিডিয়াস মূর্মু এর সভাপতিত্বে আয়োজিত ও ভুমিহীন সমিতির সম্পাদক দেলওয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ঠ রাজনীতিক নাগরিক কমিটির সভাপতি এডভোকেট কাজী লুমুম্বা লুমু, ভুমিহীন সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোখলেছুর রহমান, কমিউনিস্ট পার্টি পীরগঞ্জ কমিটির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবু সুফিয়ান হিরু, বজ্রকথা সংবাদপত্রের সম্পাদক /প্রকাশক কবি সুলতান আহমেদ সোনা, সাবেক ইউপি সদস্য সিদ্দিক মিয়া, কৃষক মোঃ জহির উদ্দিন, যোসেফ মুর্মু, রোজিনা সরেন প্রমুখ।

বক্তাগন অবিলম্বে সাধারন মানুষের নামে অসত্য গাছ কর্তনের মামলা তুলে নেওয়ার দাবী জানান। এড. কাজী লুমুম্বা বলেছেন, এই দেশ আপনার আমার সকলের। এই দেশের স্বাধীনতার জন্য হিন্দু মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান, সাওতাল, ওড়াও সকলেই যুদ্ধ করেছে রক্ত দিয়েছে। তিনি বলেন, পরাধীন ভারতে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে প্রথম সিধু ,কানু, ফুলমনিরা বিদ্রোহ করেছিল। ১৯৭১ সালে মিঠাপুকুরের সাওতালরা তীর ধনুক নিয়ে রংপুর ক্যান্টনমেন্ট আক্রমন করেছিল। সেদিন অনেক সাওতাল ভাই স্বাধীনতার জন্য রক্ত দিয়েছে। তিনি বলেন,এই দেশে এই মাটিতে সবার মত আপনাদেরও সমান অধীকার রয়েছে। তিনি বলেন, বাপ দাদার ভিটা মাটি রক্ষা করতে হলে লড়াই সংগ্রাম করতে হবে, ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস রুখতে হবে। কাজী লুমু বলেছেন, কারো ফাঁদে পা দেবেন না। লকডাউন শেষ হলে আন্দোলন সংগ্রম হবে, সেই আন্দোলনে কমিউনিষ্ট পার্টি প্রথম সারিতে থাকবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com