মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ১০:২৭ অপরাহ্ন

বিরামপুরে স্বামীর নির্যাতনে খাদিজার দুর্বিষহ জীবন

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২০
  • ৬৬ বার পঠিত

মোঃ আবু সাঈদ, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি।- পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর নির্যাতনের স্বীকার হয়ে চিকিৎসা শেষে একমাত্র শিশু সন্তান নিয়ে বাবার বাড়ীতে অসহায় দিনানীপাত যাপন করছে গৃহবধু খাদিজা।

বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার খাঁনপুর ইউনিয়নের সন্দলপুর গ্রামের মাহাবুর রহমানের কন্যা খাদিজা। গত কয়েক বছর পূর্বে একই গ্রামের ইলিয়াসের পুত্র রাসেলের সঙ্গে বিবাহ হয়। বিবাহের পর হইতেই খাদিজার স্বামী রাসেল, শ্বশুর শাশুড়ী শারিরীক, মানসিক নির্যাতন সহ বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। এরই এক পর্যায়ে রাসেল ০২ অক্টোবর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পারিবারিক দ্বন্দে আক্রোশ বশত: রাতে নির্যাতন ও মারপিট করে হাত ভেঙ্গে দেয় খাদিজার। ঘটনার পর দিন ৩ অক্টোবর খাদিজা বাবার বাড়ী চলে যায়। অসহায় পিতা-মাতা গ্রাম্য ভাবে কিছু চিকিৎসার চেষ্টা করলেও খাদিজার শারিরীক অবস্থার অবনতি হয়। ফলে ৭ অক্টোবর তার পিতা-মাতা খাদিজাকে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা নেয়। চিকিৎসা শেষে খাদিজা আবারও বাবার বাড়ী যাওয়ার পর স্বামীর পক্ষ থেকে কোন খোঁজ-খবর না থাকায় বাধ্য হয়ে গত ১৮ অক্টোবর বিরামপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং- ২৪। ঐ দিনই পুলিশ তার স্বামী রাসেলকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

তবে সমাজ ও জাতির কাছে প্রশ্ন থেকে যায় যে, নারীর জীবনে এই কি তাদের চাওয়া-পাওয়া। বর্তমানে নির্যাতিতা খাদিজা এক হাত ভাঙ্গা অবস্থায় একমাত্র শিশু সন্তান কে নিয়ে দুর্বিষহ মানসিক যন্ত্রণায় দিন কাটাচ্ছে বাবার বাড়ীতেই। সমাজের কাছে খাদিজার প্রশ্ন নারীর জীবনে এমন অসহায় ঘটনা বিরাজমান থাকলে কিভাবে গঠিত হবে সভ্য সমাজ, নারীরা কবে ফিরে পাবে তাদের সুন্দর ভবিষ্যত জীবন ধারা। বর্তমানে নারীর সহিংসতার এমন ঘটনা সমাজে বিস্তার লাভ করায় উদ্বিগ্ন অভিভাবক মহল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com