রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৪১ অপরাহ্ন

যারা তৃণমূলে পড়ে আছেন তারাই দেশের মালিক – প্রধানমন্ত্রী

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২০
  • ১১৯ বার পঠিত

বজ্রকথা ডেক্স।- ১৫ অক্টোবর বিসিএস কর্মকর্তাগণের ৭০তম বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দেশের খেটে খাওয়া, অসহায়, বঞ্চিত এবং গ্রামগঞ্জে থাকা মানুষের সেবা করাই সরকারি কর্মচারীদের সব থেকে বড় দায়িত্ব। তিনি বলেন, মনে রাখতে হবে এই দেশের গরিব মানুষ যারা এখনো তৃণমূলে পড়ে আছেন, তারাই এদেশের মালিক। আর তাদেরই ঘর থেকে সবাই লেখাপড়া শিখে আজকে উঠে এসেছেন। কাজেই সেই দিকে লক্ষ্য রেখেই তাদের সেবা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা এ দেশের শোষিত-বঞ্চিত মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছেন। তিনি স্বাধীন দেশ দিয়ে গেছেন। কিন্তু তার যে স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত, উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার, তা তিনি করে যেতে পারেননি। কাজেই সেই কর্তব্য এখন সবার। এই দেশটাকে গড়ে তুলতে হবে। প্রধানমন্ত্রী প্রশিক্ষণ গ্রহণকারীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, আপনারা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জনগণের সেবা করবেন। জনগণের সেবার জন্যই আজকে আপনারা উপস্থিত হয়েছেন, প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। এ নিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাষণে বলা কথাগুলো উল্লেখ করে তার শেখ হাসিনা বলেন, আমি কোট করছি। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, ‘আপনি চাকরি করেন, আপনার মাইনে দেয় ওই গরিব কৃষক। আপনার মাইনে দেয় গরিব শ্রমিক, আপনার সংসার চলে ওই টাকায়। আমি গাড়িতে চড়ি ওই টাকায়। ওদের সম্মান করে কথা বলেন, ওদের ইজ্জত করে কথা বলেন। ওরাই মালিক।’ প্রশিক্ষণ নেওয়া কর্মচারীদের এ কথাগুলো মাথায় রেখে কাজ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
সময় তিনি বলেন ধর্ষণের মতো ঘটনাগুলো প্রতিহত করতে আমাদের কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। তিনি বলেছেন, সমাজের কতগুলো ব্যাধি আছে। ইদানীং ধর্ষণটা খুব বেশি, ব্যাপকভাবে হচ্ছে এবং প্রচারও হচ্ছে। আর এটা যতবেশি প্রচার হয় এর প্রাদুর্ভাবটা কিন্তু তত বেশি বাড়ে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ইতিমধ্যে আইন সংশোধন করে আমরা একটা অধ্যাদেশ জারি করে দিয়েছি। কাজেই এখানে এ ধরনের ঘটনা রোধ করার জন্য ব্যাপক ব্যবস্থা নিতে হবে। মানুষের মাঝে জনসচেতনতাও সৃষ্টি করা দরকার। এদিন প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও সাতটি বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সঙ্গে ভার্চুয়ালে যুক্ত হন ।এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউস প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com