মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ১২:৪৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
১১ বছরেরও শেষ হয়নি সুন্দরগঞ্জ চার পুলিশ হত্যার বিচারিক কার্যক্রম  মেহেদী শান্তা জুটির ৪ বই পাঠকপ্রিয় হয়েছে গাইবান্ধা-৩ আসনের সাবেক এমপি মোখলেছুর মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক গাইবান্ধায় সড়ক দূর্ঘটনায় দুই যুবক নিহত শমসেরনগর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার চায় শিক্ষার্থীরা দিনাজপুর বৃদ্ধাশ্রমে কেক কেটে সময়ের আলোর ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন আধিপত্য বিস্তারে মোটর মালিক সমিতির লিপনকে সরিয়ে দিতে গুলিবর্ষণ: গ্রেফতার ৪ রংপুরে জাতীয় বাজেট প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বাজেট প্রত্যাশা শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত উচ্ছেদে অভিযানের পর ধ্বংসাবশেষ অপসারণ করেছে পৌরসভা  চিলমারী কল্যাণ সমিতির কমিটি গঠন

সেনাবাহিনী দেশের মানুষের বিশ্বাস ও ভরসার প্রতীক – প্রধানমন্ত্রী

রিপোটারের নাম
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪০২ বার পঠিত

বজ্রকথা ডেক্স।- গত ২৮ অক্টোবর বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সেনাবাহিনী দেশের মানুষের বিশ্বাস ও ভরসার প্রতীক । প্রধানমন্ত্রী গতকাল সকালে রাজধানীর গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পটুয়াখালীর লেবুখালীতে শেখ হাসিনা সেনানিবাসে নবপ্রতিষ্ঠিত তিনটি ব্রিগেড ও পাঁচটি ইউনিটের পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে এ কথা বলেছেন। তিনি আরো বলেছেন, দেশের সংবিধান এবং সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য এ বাহিনীকে সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হবে। অভ্যন্তরীণ বা বাহ্যিক যে কোনো ধরনের হুমকি মোকাবিলায় সদা সতর্ক থাকতে হবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আমাদের পররাষ্ট্রনীতি অত্যন্ত স্পষ্ট। যা জাতির পিতা দিয়ে গেছেন- ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়’। আমরা কারও সঙ্গে যুদ্ধ করতে চাই না। আমরা সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব চাই। এ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নিয়েই আমরা বাংলাদেশকে আর্থ-সামাজিকভাবে উন্নত করতে চাই। কিন্তু যদি কখনো আক্রান্ত হই, তা মোকাবিলা করার শক্তি যেন আমরা অর্জন করতে পারি, সেভাবেই আমরা প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে চাই। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, যখনই আওয়ামী লীগ, সরকার গঠন করেছে তখনই সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে পদক্ষেপ নিয়েছে। আমরা চেয়েছি সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিটি সদস্যের জীবন মান উন্নত হোক এবং সমগ্র বাংলাদেশের মানুষেরই জীবন মান উন্নত হোক। আমরা সেভাবেই কাজ করে যাচ্ছি। তিনি শৃঙ্খলা এবং চেইন অব কমান্ড বজায় রাখার উপর গুরুত্বারোপ করেন ।
লেবুখালীতে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ধন্যবাদ জানান। এসময় সেনানিবাসের জিওসিসহ ঊর্ধ্বতন সেনাকর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে অংশ নেন। মনোমুগ্ধকর কুচকাওয়াজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সালাম জানানো হয়। অনুষ্ঠানে সদর দফতর ৭ স্বতন্ত্র এডিএ ব্রিগেড (চট্টগ্রাম), সদর দফতর প্যারা কমান্ডো ব্রিগেড (সিলেট), সদর দফতর ২৮ পদাতিক ব্রিগেড, ৪৯ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি, ৬৬ ইস্ট বেঙ্গল, ৪৩ বীর, ৪০ এসটি ব্যাটালিয়ন এবং ১২ সিগন্যাল ব্যাটালিয়নের আনুষ্ঠানিকভাবে পতাকা উত্তোলন করা হয়। উল্লেখ্য ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার লেবুখালীতে পায়রা নদীর তীরে দক্ষিণবঙ্গের এই একমাত্র সেনানিবাসের উদ্বোধন করেছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2022 বজ্রকথা।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Hostitbd.Com